সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

English

আলবোর্জ পর্বতমালার কেন্দ্রে অবস্থিত একটি স্বর্গ সাভাদকু

পোস্ট হয়েছে: জানুয়ারি ২৪, ২০২৪ 

news-image
মাজানদারান প্রদেশের মধ্য আলবোর্জ পর্বতমালায় অবস্থিত সাভাদকু। প্রকৃতি উৎসাহী এবং অ্যাডভেঞ্চার অন্বেষীদের কাছে একটি মনোমুগ্ধকর স্থল হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে দর্শনীয় এই স্থানটি।
সুবিস্তৃত পর্বতমালা এবং ঘন অরণ্যে ঘেরা এই সবুজ কাউন্টি পর্যটকদের দারুণভাবে আকৃষ্ট করে। মনোরম ভূদৃশ্য এবং বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও প্রাকৃতিক বিস্ময়ে মন জুড়ে যায় পর্যটকদের।
সাভাদকুর অন্যতম দর্শনীয় আকর্ষণ আইকনিক ভেরেস্ক ব্রিজ। এটি ভেরেস্ক গ্রামে তেহরান-উত্তর রেলপথ বরাবর নির্মিত একটি বিস্ময়। সেতুটি স্থাপত্যের জাঁকজমকের জন্য বিখ্যাত, এটি রেলপথের সবচেয়ে বিখ্যাত এবং সুন্দর অংশগুলির মধ্যে একটি হিসেবে দাঁড়িয়ে আছে। আশেপাশের দৃশ্যগুলির মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে এটি একটি শ্বাসরুদ্ধকর দৃশ্য তৈরি করেছে।
তেহরান-উত্তর রেলপথটি ভেরেস্ক ও গাদউক গ্রামের মধ্যে অবস্থিত তিনটি সোনালি রেখা দ্বারা সুশোভিত সে-খাত-তালা সেতুগুলির সাথে মিলে আরও বিস্ময় সৃষ্টি করে। এছাড়া ভেরেস্ক জলপ্রপাত ভেরেস্ক গ্রামের একটি অতিরিক্ত রত্ন। এই নৈসর্গিক রেলপথ যাত্রার আকর্ষণকে আরও মনোমুগ্ধকর করেছে।
সাভাদকু শুধু প্রকৃতিপ্রেমীদের অভয়ারণ্যই নয়, ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক আকর্ষণের ভাণ্ডারও বটে। ওরিম বনাঞ্চল, আরফা’ কুহ, হেলিদার ফরেস্ট, জাঙ্গিয়ান গুহা এবং কিজাকচাল গুহা এই অঞ্চলের সমৃদ্ধ ভূতাত্ত্বিক ইতিহাসের একগুচ্ছ ঝলক। সাংদে গ্রামের চারপাশে রাশ (বিচ) বন অনন্য শরতের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলেছে। যার আকর্ষণে ছুটে আসে দূর-দূরান্ত থেকে প্রকৃতিপ্রেমীরা।
ইতিহাস উৎসাহীদের জন্য দোয়াব থেকে ২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত কাঙ্গেলো ক্যাসেল। সাভাদকুর সমৃদ্ধ অতীতের একটি প্রমাণ হিসেবে দাঁড়িয়ে আছে এটি। প্রাচীন লাজিম টাওয়ার, একই নামের একটি গ্রামে অবস্থিত। যা দর্শকদের এই অঞ্চলের ঐতিহাসিক টেপেস্ট্রি দেখার জন্য আমন্ত্রণ জানায়।
সাভাদকু একটি নাতিশীতোষ্ণ এবং আধা-আর্দ্র জলবায়ু নিয়ে গড়ে ওঠা একটি অঞ্চল। সবুজ চারণভূমির জন্য অঞ্চলটি একটি আদর্শ পরিবেশ তৈরি করেছে। সূত্র: তেহরান টাইমস