রবিবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

হযরত আলী (আ.)-এর বাণী- নাহজুল বালাগা থেকে

পোস্ট হয়েছে: জানুয়ারি ২২, ২০১৪ 

news-image

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘আমি মিথ্যা বলিনি। আমার ওপর মিথ্যা আরোপ করা হয়নি। আর আমি পথভ্রষ্ট হইনি এবং আমার দ্বারা কেউ পথভ্রষ্ট হয়নি।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৭৬

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘অন্যায় সূচনাকারী যালেম আগামী দিন (অর্থাৎ কিয়ামতের দিন) স্বীয় হাত কামড়ে খাবে।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৭৭

যেমন পবিত্র কুরআনেও বলা হয়েছে : “যালিম ব্যক্তি সেদিন নিজ হস্তদ্বয় দংশন করতে করতে বলবে : ‘হায়! আমি যদি রাসূলের সাথে সৎপথ অবলম্বন করতাম।”- সূরা ফুরকান : ২৭

হযরত আলী (আ.) মৃত্যু সম্পর্কে বলেছেন : ‘প্রস্থান (অর্থাৎ দুনিয়া থেকে চলে যাওয়া) অতি নিকটে। সুতরাং সে ব্যক্তিই জ্ঞানী যে মৃত্যুকালে নিয়ে যাওয়ার মতো পাথেয় সঞ্চয় ও প্রস্তুত করে রাখে।- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৭৮

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘ধৈর্য যাকে পরিত্রাণ দিল না, অধৈর্য ও অস্থিরতা তাকে ধ্বংস করে দিল।’ (অর্থাৎ ধৈর্য মানুষের জন্য মুক্তি আনে আর অধৈর্য ধ্বংসের কারণ)।- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৮০

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘মানুষ তো এই পৃথিবীতে লক্ষ্যবস্তুর ন্যায় যাকে লক্ষ্য করে বানের ন্যায় মৃত্যু ছুটে আসে। সে লুণ্ঠিত বস্তুর ন্যায় যাকে লুণ্ঠন করে নেওয়ার জন্য বিপদ-আপদ দ্রুত বেগে তার দিকে ধাবিত হয়। পান করার ক্ষেত্রে প্রতিটি ঢোক গলায় আটকে যাওয়ার মতো এবং প্রতিটি লোকমা (গ্রাস) কষ্টদায়ক। বান্দাকে কোন একটি নিয়ামত লাভ করতে হলে তাকে অন্য একটি নিয়ামত হাতছাড়া করতে হয়। তার জীবনের একটি দিন ভবিষ্যতে করায়ত্ত করতে হলে স্বীয় জীবন থেকে অনুরূপ একটি দিন হাতছাড়া করতে হয়। অতএব, আমরা মৃত্যুর নিত্য সহচর। আর আমাদের জীবনাত্মা সহসা মৃত্যুমুখে পতিত হওয়ার লক্ষ্যবস্তুকে পরিণত হয়েছে। কাজেই আমাদের স্থায়িত্বের আশা কোথায়? এই দিবারাত্রি (অর্থাৎ সময়) যা কিছু উন্নত ও মহান করে তোলে পরক্ষণেই তা ধ্বংস করে দেয়, যা কিছু সৃষ্টি করে তা নষ্ট করে দেয় এবং যা কিছু পুঞ্জিভূত ও একত্র করে তা বিশৃঙ্খল করে দেয়।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৮২

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘হে আদম সন্তান! তুমি তোমার জীবন ধারণের অধিক যা কিছু উপার্জন কর, অন্যের জন্য তুমি তার ভাণ্ডার রক্ষক মাত্র।’ (অর্থাৎ আদম সন্তান তার জীবন ধারণের অধিক যা উপার্জন করে তা তার উওরাধিকারীর অথবা অন্যদের জন্যই হয়ে থাকে, সে শুধু ধন-সম্পদের রক্ষক মাত্র।)- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৮৩

(নিউজলেটার, অক্টোবর ১৯৯১)