শনিবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

English

হজ্বের রাজনৈতিক বার্তা মুসলিম বিশ্বে পৌঁছে দিন: সর্বোচ্চ নেতার আহ্বান

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ২, ২০১৮ 

news-image

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী হজ্বের রাজনৈতিক বার্তা মুসলিম বিশ্বের আনাচে কানাচে পৌঁছে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। সোমবার বিকেলে ইরানের হজ্ব বিষয়ক একদল কর্মকর্তা সর্বোচ্চ নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ আহ্বান জানান।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেনহজ্ব করার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময়ে একটি নির্দিষ্ট স্থানে মুসলমানদের সমবেত হওয়ার যে নির্দেশ আল্লাহ তায়ালা দিয়েছেন তার গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক দিক রয়েছে। আর তা হচ্ছে মুসলমানদের মধ্যে ঐক্য ও ভ্রাতৃত্ব শক্তিশালী করা এবং অমুসলিমদের সামনে মুসলিম উম্মাহর শক্তিমত্তা প্রদর্শন।

তিনি বলেনহজ্বের আধ্যাত্মিক দিকটি যেমন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তেমনি এর এই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যকেও গুরুত্ব দিতে হবে এবং তা ফুটিয়ে তুলতে হবে।

প্রতি বছর হজ্বের সময় ইসলামের মাজহাবগুলোর মধ্যে ঐক্য ও সংহতি সৃষ্টির অপূর্ব সুযোগ সৃষ্টি হয় বলে উল্লেখ করেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা। তিনি বলেনএই সুযোগকে কাজে লাগাতে হবে।

হজ্বের জন্য জায়গা বাড়ানোর অজুহাতে বিশ্বনবী (সা.)আমিরুল মুমিনীন আলী (আ.)খলিফাগণ ও ইসলামের প্রাথমিক যুগের মুজাহিদদের স্মৃতি বিজড়িত স্থানগুলো ধ্বংস করে ফেলার যে পদক্ষেপ সৌদি সরকার নিয়েছে তার কঠোর সমালোচনা করেন সর্বোচ্চ নেতা।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেনবিশ্বের বিভিন্ন দেশ তাদের ঐতিহাসিক স্থানগুলোকে অত্যন্ত যত্নের সঙ্গে সংরক্ষণ করেএমনকি অনেক দেশ তাদের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধশালী করার জন্য অনেক সময় বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনাকে পুনর্নির্মাণ করে।

তিনি বলেনঅথচ সৌদি সরকার মক্কা ও মদীনার অসংখ্য ইসলামি ঐতিহ্যকে ধ্বংস করে ফেলেছে যা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি এই ধ্বংসাত্মক কাজ থেকে সৌদি সরকারকে বিরত রাখার লক্ষ্যে অন্যান্য মুসলিম দেশের হজ্ব বিষয়ক কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য ইরানি কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।-পার্সটুডে।