সোমবার, ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

স্কুলের ঘণ্টা বাজালেন রুহানি, পরমতসহিষ্ণু হওয়ার আহ্বান

পোস্ট হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৭ 

news-image

ইরানের স্কুলে ফারসি বছরের বর্ষশুরু উপলক্ষে তেহরানের একটি স্কুলে দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ঘণ্টা বাজিয়ে তা শুরুর ঘোষণা দেন। শনিবার ইরানের স্কুলগুলোতে নতুন সেশন শুরু হয়। সেপ্টেম্বর মাসের ২৩ তারিখ অর্থাৎ ফারসি বছরের সপ্তম মাস মেহের’এ স্কুলের নতুন বছর শুরু হয়ে থাকে ইরানে।

এ উপলক্ষে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ছাত্রদের প্রতি বেশ কিছু প্রশ্ন উত্থাপন করেন এবং তার কাছে এসব প্রশ্নের উত্তর পাঠাতে বলেন। এধরনের প্রশ্ন ইরানি সপ্তম মাস মেহর’এর নামে ‘মেহর কোশ্চেন’ হিসেবে পরিচিত। ছাত্রদের প্রতি প্রেসিডেন্ট রুহানির এমন একটি প্রশ্ন ছিল, ‘কিভাবে আমরা স্কুলকে এমন একটি প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে পারি যাতে আমরা একে অপরকে ও পারস্পরিক মতামতকে শ্রদ্ধা এবং ধৈর্যের সঙ্গে বিনিময় করতে পারি। কিভাবে আমরা নৈতিকতা, সৌজন্যতা এবং ধৈর্য ধরে অনুশীলন করতে পারি?

ওুহানি বলেন, যদি আমরা কারো মতামতকে হেসে উড়িয়ে দেই বা তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করি, তাহলে আমরা পরস্পরকে কখনো সহানুভূতির সঙ্গে সহ্য করতে শিখব না। তিনি ছাত্রদের অন্যের কথা বা অভিমতকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনার তাগিদ দেন। সৃষ্টিশীল কাজের সঙ্গে ঘনিষ্ট হবার পরামর্শ দিয়ে ছাত্রদের প্রতি রুহানি বলেন, এতে তারা বড় হয়ে সাহসের সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে শিখবে।

রুহানি বলেন, ছাত্রদের প্রশ্ন করার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। তাদের সকল প্রশ্নের উত্তর ধৈর্যের সঙ্গে দেওয়ার জন্যে শিক্ষকদের প্রতি অনুরোধ জানান ইরানের প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, স্কুলের পরিবেশ সৃষ্টিশীল ও দক্ষতায় পরিপূর্ণ করে তুলতে পারলে ছাত্ররা চিন্তাশীল ও জ্ঞানের ধ্যানধারণা লাভ করবে। তিনি বলেন, একজন ছাত্র স্কুলে ১২ বছরের শিক্ষার গন্ডি পার হবার পর তার অর্জিত জ্ঞান কাজে লাগানোর মত সঠিক কাজ যাতে পায় তাও জরুরি। -তেহরান টাইমস