বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানী মহাস্থানগড়

পোস্ট হয়েছে: নভেম্বর ২৪, ২০১৬ 

news-image

দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থার (সার্ক) সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে দেশের প্রাচীন জনপদ বগুড়ার মহাস্থানগড়।

ঢাকা সফররত সার্ক কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ওয়াসান্থে কোতোয়ালার নেতৃত্বে সংস্থার একটি প্রতিনিধিদল বৃহস্পতিবার এ ঘোষণা চূড়ান্ত করে।

আগামী বছরের ২১ জানুয়ারি থেকে এ ঘোষণা কার্যকর হবে বলে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর সূত্র জানায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই রাজধানীর উদ্বোধন করবেন

বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রাচীন পুরাকীর্তি মহাস্থানগড়। বগুড়া শহর থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার উত্তরে করতোয়া নদীর পশ্চিম তীরে মহাস্থানগড় সুমহান ঐতিহ্যের সাক্ষী হয়ে আজও দাঁড়িয়ে আছে। প্রাচীন পুণ্ড্রবর্ধন রাজ্যের রাজধানী মহাস্থানগড়ের নাম ছিল পুণ্ড্রনগর। এখানে মৌর্য, গুপ্ত, পাল ও সেন সাম্রাজ্যের প্রচুর নিদর্শন পাওয়া গেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সাল থেকে সার্ক কালচারাল সেন্টার সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে কোনো একটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী অঞ্চলকে সার্কের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করে আসছে। সার্কভুক্ত দেশগুলোর ইংরেজি নামের আদ্যক্ষরের ভিত্তিতে দেশগুলোর স্থান বেছে নেওয়া হচ্ছে।

যেমন গত বছর সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয় আফগানিস্তানের বামিয়ানকে।

ব্রিটিশ প্রত্নতত্ত্ববিদ আলেকজান্ডার কানিংহ্যাম ১৮৭৯ সালে প্রাচীন পুণ্ড্রবর্ধন রাজ্যের ঐতিহাসিক নিদর্শন আবিষ্কার করেন । এই রাজ্যের রাজধানী বিস্তৃত ছিল বর্তমানের রাজশাহী, দিনাজপুর এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিনাজপুর পর্যন্ত।