সোমবার, ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

সশস্ত্র বাহিনী ইরানের জাতীয় শক্তি ও ক্ষমতার প্রতীক: সর্বোচ্চ নেতা

পোস্ট হয়েছে: এপ্রিল ১৮, ২০১৯ 

news-image

ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক বলেছেন, সকল বাহিনীর মধ্যে ঐক্য বৃদ্ধির ঘটনা শত্রুদের ক্ষোভের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। হযরত আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, মার্কিন হিংসাত্মক পদক্ষেপের পর সেনাবাহিনী এবং বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর মধ্যকার ঐক্য ও ভ্রাতৃত্ব ছিল চমৎকার একটি ঘটনা।

সেনাবাহিনীর কমান্ডারদের দেয়া এক সাক্ষাতে বুধবার সর্বোচ্চ নেতা দেশের বিভিন্ন এলাকায় বন্যা দুর্গতদের ত্রাণ ও সাহায্যে সেনাবাহিনীর তৎপরতার ভূয়সি প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন যেসব কাজ বা পদক্ষেপ শত্রুদের হতাশ করে সেটাই সঠিক কাজ। পক্ষান্তরে যেসব কাজ শত্রুদের উৎসাহিত ও প্রাণীত করে সেসব কাজ পরিহার করতে হবে। হাজার হাজার বিলিয়ন ডলার ঋণভারে জর্জরিত আমেরিকা বহু রকমের সমস্যায় রয়েছে। সে কারণে কয়েক বছর আগে ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যে যে ঝড়-তুফান হয়েছিল তার ক্ষয়ক্ষতি এখনো কাটিয়ে উঠতে পারে নি আমেরিকা। অথচ তারা ইরানি জাতির মনোবল দুর্বল করার জন্য নিরর্থক গলাবাজি করছে।

সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক প্রশ্ন তোলেন: সন্ত্রাসী গোষ্ঠি দায়েশ দমনে যদি ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী সহযোগিতা না করতো তাহলে সেখানে আজ কারা হুকুমাত করতো?

১৮ এপ্রিল সেনাবাহিনী দিবস উপলক্ষে সর্বোচ্চ নেতা সশস্ত্র বাহিনীকে ‘জাতীয় শক্তি ও ক্ষমতার প্রতীক’ বলে উল্লেখ করেন।পার্সটুডে।