বুধবার, ১৭ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ২রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তায় ইরানের ভূমিকার প্রশংসা করল বাংলাদেশ

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ১৫, ২০১৭ 

news-image

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিম শরণার্থীদের কাছে ত্রাণ সাহায্য পাঠানোর বিষয়ে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রচেষ্টা এবং ভূমিকার প্রশংসা করেছেন।বৃহস্পতিবার ঢাকায় ইরানি রেডক্রিসেন্ট সংস্থার প্রধান আলী আসগর পেইভান্দি ও তার সঙ্গে আসা প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় এই প্রশংসা করেছেন।

এসময় মোহাম্মাদ নাসিম বলেন, সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।তিনি বলেছেন, বহু রোহিঙ্গা মুসলমান মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী ও বৌদ্ধদের হাতে হয়রানি এবং নির্যাতনের শিকার হয়েছে।

রোহিঙ্গাদের জন্য গত মঙ্গলবার ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের ত্রাণ সাহায্যের তৃতীয় চালান বাংলাদেশে পৌঁছে।রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশে-পাঠানো ইরানের ত্রাণ সাহায্যের মধ্যে ১৩০ ধরনের সাহায্য-সামগ্রী রয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পুলিশ পোস্ট ও সেনাক্যাম্পে হামলার অভিযোগ এনে রোহিঙ্গাদের গণহত্যা, নির্যাতন ও বিতাড়ন শুরু করে মিয়ানমার সামরিক বাহিনী এবং বৌদ্ধ জঙ্গিরা।

আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক দেশ ও সংস্থাগুলোর একের পর এক হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত শুদ্ধি অভিযান বন্ধ হচ্ছে না। দেশটির সেনাবাহিনী ও উগ্র বৌদ্ধরা রোহিঙ্গা মুসলমানদের হত্যা করে যাচ্ছে এবং বাংলাদেশ অভিমুখে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্রোত অব্যাহত রয়েছে।

জাতিসংঘের সাম্প্রতিক ঘোষণা অনুযায়ী রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে গত ২৫ আগস্টে শুরু-হওয়া সহিংসতার পর থেকে ৫ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। আর শরণার্থী শিবিরগুলোর অবস্থা শোচনীয়।- পার্সটুডে।