বুধবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

English

যুদ্ধ পর্যটনের প্রসারে ভূমিকা রাখতে পারে শহীদ হোজাজির সমাধি

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ২৭, ২০২০ 

news-image

ইরানি সৈন্য মোহসেন হোজাজির সমাধিস্থল ঘিরে গড়ে উঠতে পারে যুদ্ধ পর্যটন। যিনি ২০১৭ সালে সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) সন্ত্রাসীদের হাতে পাশবিকভাবে শহীদ হন। পরবর্তীতে তাকে নাজাফাবাদ শহরে সমাধিস্থ করা হয়। তার এই সমাধি অঞ্চলটিতে যুদ্ধ পর্যটনের প্রসার ঘটাতে পারে বলে জানিয়েছেন ইরানের পর্যটন উপমন্ত্রী ভালি তেইমৌরি।

সাহসিকতার জন্য হোজাজির ব্যাপক সুনাম ছিল। ঘৃণ্য সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দুঃসাহসিক লড়াইয়ে তিনি ছিলেন অগ্রগামী। ২০১৭ সালের ৭ আগস্ট দক্ষিণপূর্ব সিরিয়ার আল-তানফের নিকটে আইএসের হাতে তিনি বন্দি হন। এর ঠিক দুদিন পর তার শিরশ্ছেদ করা হয়।

তেইমৌরি বলেন, নাজাফাবাদে ঐতিহাসিক ভবনগুলোর পুনরুদ্ধার ও বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণসহ পর্যটন অবকাঠামো শক্তিশালী করা হলে জনপ্রিয় শহর ইসফাহানের কাছের এই অঞ্চলটি একটি শীর্ষ পর্যটন গন্তব্যে পরিণত হতে পারে।

নাজাফাবাদ শহরটি গড়ে ওঠে সাভাবিদ আমলে (১৫০১ থেকে ১৭৩৬)। শহরটি ঐতিহাসিক ঘুঘুর বাসা ও শেখ বাহাই কেল্লার জন্য বিখ্যাত। সূত্র: তেহরান টাইমস।