মঙ্গলবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

মুসলিম বিশ্বের প্রতি ইরানের বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের হাত সবসময় প্রসারিত: রুহানি

পোস্ট হয়েছে: নভেম্বর ২৫, ২০১৮ 

news-image

শত্রুরা চায় ইরান বিপ্লব পূর্ববর্তী যুগের মতো তাদের সকল কার্যক্রম চালিয়ে যাক এবং এ অঞ্চলের মজলুম জনগোষ্ঠিকে সহায়তা না করুক। কিন্তু ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান রাসূল সা) এর অনুসরণে কোনোরকম নিষেধাজ্ঞাকে ভয় পায় না। তেহরানে চলমান ৩২ তম ইসলামি ঐক্য সম্মেলনে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ সর্বোচ্চ নেতার সঙ্গে সাক্ষাত করতে গেলে প্রেসিডেন্ট রুহানি এ কথা বলেন।

সরকারি কর্মকর্তা, মুসলিম দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতসহ বিভিন্ন শ্রেণী ও পর্যায়ের ব্যক্তিত্ববর্গ ওই সাক্ষাৎ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। সর্বোচ্চ নেতার ভাষণের আগে প্রেসিডেন্ট রুহানি আরও বলেন, ইরান প্রতিবেশিদেরকে নিজেদের ভাই এবং আঞ্চলিক নিরাপত্তাকে নিজেদের নিরাপত্তা বলে মনে করে। তিনি বলেন তাকফিরি সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে আধিপত্যবাদীরা মধ্যপ্রাচ্যকে অস্থিতিশীল ও নিরাপত্তাহীন করে তুলতে চেয়েছে। তথাকথিত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ইরানের ওপর চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করেছে। তাদের সকল চেষ্টাই ব্যর্থ হয়েছে বলে প্রেসিডেন্ট রুহানি উল্লেখ করেন।

বর্ণবাদী ধূর্ত ধোকাবাজরা প্রতিদিনই ফিলিস্তিনের নিরীহ জনতার ওপর গণহত্যা চালাচ্ছে। অপরদিকে ইয়েমেনের জনগণের ওপর বোমা বর্ষণ করে যাচ্ছে মুসলিম নামধারী কিছু উগ্রপন্থি সন্ত্রাসী। তিনি বলেন, কুরআনের নাম নিয়ে, ইসলামের নামে শ্লোগান দিয়ে ওইসব সন্ত্রাসী এ অঞ্চলে নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি করেছে এমনকি মুসলিম ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির নিদর্শনগুলো ধ্বংস করেছে।

প্রেসিডেন্ট রূহানি বলেন, ইরানের বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের হাত সকল মুসলমানের প্রতি সবসময় প্রসারিত রয়েছে। ইরান চায় ঐক্য, রহমত ও কৌশল। আর এইসব মূল্যবোধ কেবল নবীজীর আদর্শের ছত্রচ্ছায়াতেই সবার পক্ষে অজর্ন করা সম্ভব বলে ইরানের প্রেসিডেন্ট মন্তব্য করেন। পার্সটুডে।