শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

মধ্যপ্রাচ্যে বিদেশী শক্তির উপস্থিতি কখনোই এ অঞ্চলের মানুষের স্বার্থে ছিল না: ড. রুহানি

পোস্ট হয়েছে: নভেম্বর ১৬, ২০১৭ 

news-image

ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে বিদেশী শক্তির উপস্থিতি কখনোই এ অঞ্চলের মানুষের স্বার্থে ছিল না। এ অঞ্চলে বহির্শক্তির উপস্থিতির ফলে অস্ত্র বিক্রি, মতবিরোধ সৃষ্টি, তেলের দাম কমানোর খেলাই হয়েছে।

বুধবার মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকে ড. রুহানি আরও বলেন, বিদেশী শক্তিগুলোর হস্তক্ষেপের ফলেই ইরাক, আফগানিস্তান, সিরিয়া এবং ইয়েমেনে যুদ্ধ বেধেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, ইয়েমেনের নিরীহ মানুষ কয়েক বছর ধরে দারিদ্র্য ও রোগ-ব্যাধিতে মানবেতর জীবন যাপন করছে। কোনো কারণ ছাড়াই ইয়েমেনের মজলুম জনগণের ওপর অব্যাহতভাবে আগ্রাসন চালানো হচ্ছে। সৌদি জোটের ওই নির্যাতনের মোকাবেলায় জাতিসংঘ নীরব রয়েছে, সমাধানের জন্য কোনো পদক্ষেপই তারা নিচ্ছে না। পশ্চিমা শক্তিগুলোও এই আগ্রাসনকে সহায়তা দিচ্ছে বলে ড. রুহানি মন্তব্য করেন।

সৌদি আরবের নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন, লেবাননের মতো একটা স্বাধীন দেশের ব্যাপারে প্রকাশ্য হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে। লেবাননের প্রধানমন্ত্রীকে ইস্তফা দিতে বাধ্য করা কিংবা তার জায়গায় অন্য কাউকে বসানোর ঘটনাকে ইতিহাসের নজিরবিহীন ঘটনা বলে উল্লেখ করেন ড. রুহানি। হস্তক্ষেপকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন: কোন শক্তিবলে এসব করা হচ্ছে!

প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন অত্যন্ত লজ্জার বিষয় হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের একটি দেশ ইসরাইলকে বলছে লেবাননের জনগণের ওপর বোমা হামলা চালাতে।

তিনি বলেন ইরান সবসময় মজলুমের পাশে ছিল এবং থাকবে। ইরান কখনোই নিরীহ মুসলমানের ওপর সন্ত্রাসী হামলা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখবে না বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন ড. রুহানি।- পার্সটুডে ।