মঙ্গলবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

মধ্যপ্রাচ্যের বৃহৎ ফিল্ম ফেস্টিভালে দুই বাংলাদেশি তরুণ নির্মাতা

পোস্ট হয়েছে: এপ্রিল ১৭, ২০১৮ 

news-image

ইরান তথা মধ্যপ্রাচ্যের সব থেকে বড় চলচ্চিত্র উৎসব ‘ফজর ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল’। প্রতি বছর তেহরানে সাত দিনব্যাপী চলে এই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এই চলচ্চিত্র উৎসবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনের পাশাপাশি সারা বিশ্বের প্রায় পঞ্চাশটি দেশ থেকে ক্যাম্পাস ভিত্তিতে ট্যালেন্টও খোঁজে ‘ট্যালেন্ট ক্যাম্পাস’ ক্যাটাগরির আওতায়। এই ট্যালেন্ট হান্ট প্রতিযোগিতায় যারা নির্বাচিত হন তাদের  জন্যে ‘ফজর ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল’ এর পক্ষ থেকে করানো হয় বিশেষ কর্মশালা। বলে রাখা ভালো, প্রতি বছরের ন্যায় এবারো চলতি মাসের ১৭ তারিখ শুরু হয়ে ২৩ তারিখ শেষ হবে ‘ফজর ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল-২০১৮’ এর ৩৬ তম আসর। মধ্যপ্রাচ্যের সব থেকে বড় এই চলচ্চিত্র উৎসবে এবারের ‘ট্যালেন্ট ক্যাম্পাস’ ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের দুই স্বাধীন সিনেমা নির্মাতা কাজী মাহাদী মুনতাসির ও জোসেফ মেহেদী।

এই চলচ্চিত্র উৎসবে পঞ্চাশটি দেশ থেকে ‘ট্যালেন্ট ক্যম্পাস’ এর আওতায় যারা যোগদান করেন তাদের জন্যে বিশেষ বৃত্তির ব্যাবস্থা রাখে ‘ফজর ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল’। এই বৃত্তির আওতায় কাজী মাহাদী মুনতাসির ও মেহেদী বিমান ভাড়াসহ ইরানে থাকা-খাওয়া ও অভ্যন্তরীণ যাতায়াত ভাড়া পেয়েছেন। এছাড়া এই দুই তরুণ নির্মাতা পাচ্ছেন ইরানের খ্যাতনামা চলচ্চিত্র প্রতিষ্ঠানে মাস্টার্স ক্লাস ও কর্মশালায় অংশগ্রহণের সুযোগ।

ইরানের তেহরানে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এই চলচ্চিত্র উৎসবের ‘ট্যালেন্ট ক্যাম্পাস’ বৃত্তি প্রদানের উদ্দেশ্য হচ্ছে, মূলত ইরানের চলচ্চিত্র উন্নয়ন ও নতুন ধারার চলচ্চিত্রের সঙ্গে বিশ্বের তরুণ চলচ্চিত্রকারদের পরিচয় ঘটানো।

মাহাদী মুনতাসির পেশায় একজন কম্পিউটার প্রকৌশলী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করে জাতীয় চলচ্চিত্র অনুদানপ্রাপ্ত সিনেমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন এখন। ইতিপূর্বে কাজী মাহাদী মুনতাসির নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র“মিসিং” দেশে বিদেশে বেশ ক’টি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছে এবং সেই সাথে সুনামও কুড়িয়েছেন তিনি।

একই ক্যাটাগরিতে এই উৎসবে যোগ দিতে যাচ্ছেন জোসেফ মেহেদী। তিনিও মাস্টার্স করেছেন টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। ১ম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘পোস্টার’। এই তরুণ নির্মাতা প্রথম কোন সাফল্য পান ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিপেন্ডেন্ট শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভাল থেকে। যেটি ছিল ঐ ফিল্ম ফেস্টিভালের নবম আসর। তারপর সিনেমা সমালোচক হিসেবে বেস্ট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড পান সপ্তম ইয়ুথ ফেস্টিভাল, চুয়েট থেকে এবং আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভালের অষ্টম আসরের জন্যেও মনোনীত হয়েছিলেন মেহেদী। ২০১১ সাল থেকে মিডিয়াতে একজন ক্যামেরা ম্যান হিসেবে কাজ করছেন তিনি। বর্তমানে স্বাধীন এই নির্মাতা ব্যস্ত আছেন ‘প্রতিবন্ধী শিশু’ ও ‘সাকরাইন’ এর ওপর বিশেষ ডকুমেন্টারি নির্মাণে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩৫তম আসরেও বাংলাদেশ থেকে একই ক্যাটাগরিতে মধ্যপ্র্যাচ্যের এই বৃহৎ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি ডিপার্টমেন্টের (এমসিটি) শিক্ষার্থী সৈয়দ মিনহাজ হোসেন।

মূলত ফজর ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল (এফআইএফএফ) এমন একটি অনুষ্ঠান, যেখানে বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতি বিনিময় করা হয় এবং ইরানও আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত চলচ্চিত্র প্রদর্শন করে। প্রতি বছর খ্যাতনামা চলচ্চিত্র পরিচালকদের পাশাপাশি নবীন চলচ্চিত্র পরিচালকরা তাদের নির্মিত চলচ্চিত্র এ উৎসবে প্রদর্শন করেন। বরাবরের মতো এবারোও ৩৬তম এফআইএফএফ উৎসব তত্ত্বাবধান করছেন ইরানের স্বনামধন্য চলচ্চিত্র নির্মাতা রেজা মিরকারিমি।