সোমবার, ২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অলিম্পিকের সোনার মেডেল উৎসর্গ

পোস্ট হয়েছে: নভেম্বর ১৬, ২০১৭ 

news-image

শক্তিশালী ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় সোনার মেডেল নিলামে তুলতে যাচ্ছেন রিও অলিম্পিকে সোনা জয়ী ইরানি ভারোত্তলক কিয়ানুশ রোস্তামি। ভুক্তভোগীদের পাশে দাঁড়াতে বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ক্রীড়া আসরের এই মেডেল উৎসর্গ করছেন তিনি। মেডেল বিক্রির অর্থ তিনি ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য দান করবেন।

গত রোববার ইরাক এবং ইরানের উত্তর-পশ্চিম সীমান্তবর্তী প্রদেশগুলোতে সংঘটিত ৭.৩ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পে  এ পর্যন্ত পাঁচ শতাধিক নিহত এবং আহত হয়েছে হাজার হাজার মানুষ। এতে শহরের বসতবাড়ি ও অবকাঠামোর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিপুল সংখ্যক ক্ষতিগ্রস্ত এসব মানুষজনের পাশে দাঁড়াতে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে এসেছে দেশটির বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

কিয়ানুশ রোস্তামি ২০১৬ সালের রিও অলিম্পিকে ভারোত্তলনে সোনা জিতে এ আসরে ইরানকে প্রথম পদক এনে দেন। পুরুষদের ৮৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে ৩৯৬ কেজি ওজন তুলে নয়া রেকর্ড গড়ে তিনি এ পদক লাভ করেন।

রোস্তামি বলেন, ‘‘আমার সোনার মেডেল দেশের জনগণের সম্পত্তি এবং আমি এটা তাদের কাছে হস্তান্তর করছি মাত্র। দুঃখজনক এই ঘটনার জন্য আমি গতরাতে ঘুমোতে পারিনি।’’

এদিকে, ইরানের বেশ কিছু সংখ্যক শীর্ষ অ্যাথলেট ও ক্রীড়া সেলিব্রেটি ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অর্থ সংগ্রহ করতে বুধবার তেহরানের শরোদি স্টেডিয়ামে মিলিত হবেন।

রিল অলিম্পিকে ২৫ বছর বয়সী  ইরানি অ্যাথলেট  কিয়ানুশ রোস্তামি স্ন্যাচ বিভাগে ১৭৯ কেজি এবং ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ২১৭ কেজি তুলে নিজের রেকর্ড ভাঙেন। এর আগে ২০১২ সালে লন্ডন অলিম্পিকে ভারোত্তলনে ৩৮০ কেজি ওজন তুলে ব্রোঞ্জ পদক জেতেন রোস্তামি।

সূত্র: তেহরান টাইমস।