মঙ্গলবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

English

বৈশ্বিক বাজারে কদর বাড়ছে ইরানের শোভাবর্ধক গাছের

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ১৫, ২০১৮ 

news-image

আন্তর্জাতিক বাজারে বেড়ে চলেছে ইরানের ফুল ও শোভাবর্ধক গাছের চাহিদা। বিগত ফারসি বছরে দেশটির বৈদেশিক বাণিজ্যের চিত্র তেমনটাই বলছে। গেল বছর ফুল ও শোভাবর্ধক গাছ আমদানি-রপ্তানিতে দেশটির ইতিবাচক বাণিজ্যিক ভারসাম্য দেখা গেছে। এক্ষেত্রে ইরানের বাণিজ্যিক ভারসাম্যের পরিমাণ ১১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ছুঁয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কৃষি মন্ত্রণালয়ের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের গ্রিনহাউস, মেডিসিনাল প্লান্টস অ্যান্ড ইডিবল মাশরুম অ্যাফেয়ারস ব্যুরোর প্রধান গোলামরেজা তাকাভি জানান, গত বছর তার দেশ ২৫ মিলিয়ন ডলারের ফুল গাছ, বীজজাত চারা ও কন্দ রপ্তানি করেছে। অন্যদিকে, দেশটি থেকে এ জাতীয় পণ্যের আমদানি হয়েছে প্রায় ১৪ মিলিয়ন ডলার।

দেশের বাজারে বছরে ৪০ লাখ সংগ্রহ করা ফুলের চাহিদা রয়েছে উল্লেখ করে তাকাভি বলেন, ‘‘আগে আমাদের প্রায় ৬০ মিলিয়ন ডলারের ফুল গাছ, বীজজাত চারা ও কন্দ আমদানি করতে হত। কিন্তু দেশীয় উৎপাদন বেড়ে যাওয়ায় আমদানির পরিমাণ কমেছে।’’

ওই কর্মকর্তার তথ্যমতে, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে ইরানে আড়াই বিলিয়নের অধিক শোভাবর্ধক ফুলের চাষ হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইরানে ৬ হাজার ৫৯৯ হেক্টরের অধিক জমিতে সৌন্দর্যবর্ধক গাছপালা ও ফুলের চাষ হয়ে থাকে। এর মধ্যে ২ হাজার ৪শ হেক্টর জমিতে গ্রিনহাউজ চাষাবাদ হয়। আর বাকি জমিতে সাধারণভাবে খোলামেলা জায়গাতে চাষাবাদ হয়ে থাকে। সূত্র: মেহর নিউজ এজেন্সি।