শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

বিশ্ব-অলিম্পিকে ইরানের ভারোত্তোলন তারকার ব্রোঞ্জ হয়ে গেল রূপা!

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ২৩, ২০১৬ 

news-image

২০১২ সালের লন্ডন অলিম্পিকের ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতায় ব্রোঞ্জ পদক পাওয়া ইরানি খেলোয়াড় কিয়ানুশ রোস্তামির পদককে রৌপ্য পদক বলে ঘোষণা করেছে বিশ্ব অলিম্পিক কমিটি।

এর কারণ রাশিয়ার যে খেলোয়াড় ওই প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রৌপ্য পদক পেয়েছিলেন তার ডোপিং টেস্টের ফলাফল পুনরায় পরীক্ষার পর তা পজিটিভ বলে ধরা পড়েছে। রাশিয়ার এই প্রতিদ্বন্দ্বীর নাম আপ্তি অউখাদভ। অনূর্ধ্ব ৮৫ কেজি গ্রুপের এই প্রতিদ্বন্দ্বীর ডোপিং টেস্টের নমুনায়  অ্যানাবলিক স্টেরয়েড টুরিনাবল ও ড্রোস্টানোলোন পাওয়া গেছে।

২০০৮ সালের বেইজিং অলিম্পিক বা ২০১২ সালের লন্ডন অলিম্পিকের ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতায় যেসব প্রতিদ্বন্দ্বী এ পর্যন্ত ডোপিং পরীক্ষায় উৎরে যেতে ব্যর্থ হয়েছেন বলে প্রমাণিত হয়েছে তাদের মধ্যে অউখাদভ হলেন দশম। ইরানের কিয়ানুশ রোস্তামি ৩৮০ কেজি ভারোত্তোলন করে ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছিলেন। এখন তার সেই পদক রৌপ্য পদকে উন্নীত হল। আর সে বছরের সেই প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থানের অধিকারী মিশরের তারেক ইয়াহিয়া তৃতীয় অবস্থানে উঠে এসে ব্রোঞ্জ পদক পেলেন। তিনি ৩৭৫ কেজি ভারোত্তোলন করেছিলেন। উল্লেখ্য, কোনও কোচ থেকে প্রশিক্ষণ না নেয়া সত্ত্বেও ব্রাজিলের সাম্প্রতিক বিশ্ব-অলিম্পিকে ৮৫ কেজি ওজন শ্রেণীর ভারোত্তোলনে সোনা জিতেছেন ইরানের কিয়ানুশ রোস্তামি।সূত্র: পার্সটুডে