মঙ্গলবার, ১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুত বর্ধণশীল পর্যটন গন্তব্যের দেশ ইরান

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ৬, ২০১৯ 

news-image

 ২০১৮ সালে বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুত বর্ধণশীল পর্যটন গন্তব্য হিসেবে ইরানকে স্বীকৃতি দিয়েছে বিশ্ব পর্যটন সংস্থা ইউনাইটেড নেশনস ওয়ার্ল্ড ট্যুরিজম অর্গানাইজেশন (ইউএনডব্লিউটিও)। গত বছর আগের বছরের তুলনায় দেশটিতে পর্যটক আগমনের পরিমাণ বাড়ে ৪৯.৯ শতাংশ। এই প্রবৃদ্ধি নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসে ইরান।

২০১৮ সালের ইউএনডব্লিউটিও-এর বার্ষিক প্রতিবেদন মতে, মিশর, নেপাল, জর্জিয়া এবং দক্ষিণ কোরিয়ার মতো দেশকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে ইরান। অন্যদিকে, দ্রুত বর্ধণশীল পর্যটন গন্তব্য হিসেবে প্রথম স্থান অর্জন করেছে ইকুয়েডর। প্রতিবেদনটিতে বিশ্বের যেসব দেশের পর্যটন প্রবৃদ্ধি সর্বাপেক্ষা বেশি সেসব দেশের পর্যটন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় তুলে আনা হয়।

র‌্যাঙ্কিংয়ে ইরানের পরে রয়েছে মিশর, যাদের পর্যটক আগমনের হার বেড়েছে ৩৬ শতাংশ। এরপরে যথাক্রমে উগান্ডার বেড়েছে  ৩১.৯ শতাংশ, নেপালের ২৪ শতাংশ, স্লোভেনিয়ার ২৩ শতাংশ, ভিয়েতনামের ১৯.৯ শতাংশ, জর্জিয়ার ১৬.৯ শতাংশ এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ১৫.১ শতাংশ।

ইরানের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, পর্যটন ও হস্তশিল্প মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, চলতি ইরানি বছরের প্রথম পাঁচ মাসে (মার্চ ২১ থেকে আগস্ট ২২) ইরান প্রায় ৪০ লাখ বিদেশী পর্যটককে স্বাগত জানিয়েছে, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি।

সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে মন্ত্রণালয় জানায়, গত ইরানি বছরে প্রায় ৭৮ লাখ বিদেশী পর্যটক আকৃষ্ট করে ইরান। এই পর্যটক সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় ৫০ শতাংশ বেশি।

ইরানে বাজার, জাদুঘর, মসজিদ, সেতু, বাথহাউস, মাদ্রাসা, মাজার, গীর্জা, টাওয়ার এবং ম্যানসিসের মতো শত শত ঐতিহাসিক স্থান রয়েছে যা বিদেশী পর্যটকদের বেশ জনপ্রিয়। এসব ঐতিহাসিক স্থানের মধ্যে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পেয়েছে ২২টি দর্শনীয় স্থান।

২০১৯ সালের ট্র্যাভেল রিস্ক ম্যাপে ‘ইনসিগনিফিকেন্ট’ ক্যাটাগরিতে স্থান পায় ইরান। এই বিভাগের দেশটির সাথে আরও রয়েছে যুক্তরাজ্য, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড, নরওয়ে এবং ফিনল্যান্ড। ট্র্যাভেল রিস্ক ম্যাপে পর্যটন গন্তব্যের দিক দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর ঝুঁকির মাত্রা বিশ্লেষণ করে র‌্যাঙ্কিং প্রকাশ করা হয়।

‘২০২৫ ট্যুরিজম ভিশন প্ল্যান’ অনুযায়ী, ইরান ২০২৫ সাল নাগাদ ২ কোটি বিদেশি পর্যটক আকৃষ্টের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। ২০১৪ সালে যেখানে দেশটিতে বিদেশি পর্যটক আগমনের সংখ্যা ছিল ৪৮ লাখ। সূত্র: তেহরান টাইমস।