শুক্রবার, ২০শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং, ৫ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

English

‘বিপ্লবী আদর্শের প্রতি বিপুল সংখ্যক ইরানি যুবকের গভীর অনুরাগ মহাবিস্ময়কর’

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ৪, ২০১৭ 

news-image

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা হযরত আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, ইরানি জাতি ও এর যুব সমাজের মধ্যে জিহাদ আর শাহাদাতের আদর্শ ভুলিয়ে দেয়ার জন্য শত্রুদের ব্যাপক চেষ্টা সত্ত্বেও বিপ্লবী আদর্শের প্রতি বিপুল সংখ্যক ইরানি যুবকের গভীর অনুরাগ মহাবিস্ময়কর ব্যাপার।

তিনি মঙ্গলবার দুপুরে শহীদ মোহসেন হুজাজির পরিবারকে দেয়া এক সাক্ষাতে এই মন্তব্য করেছেন।

২৬ বছর বয়স্ক ইরানি যুবক মোহসেন হুজাজি সিরিয়ায় ইমাম হুসাইন (আ) এর বোন হযরত যায়নাব সালামুল্লাহি আলাইহার  পবিত্র মাজার রক্ষাকারী স্বেচ্ছাসেবী বাহিনীর একজন সিনিয়র কমান্ডার হিসেবে গত ৯ আগস্ট সিরিয়া ও ইরাক সীমান্তে তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ বা আইএসআইএল-বাহিনীর হাতে শহীদ হয়েছেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা শহীদ হুজাজির প্রশংসা করে তাকে মহান আল্লাহর নিদর্শন ও সন্ত্রাসীদের হাতে মস্তক-বিচ্ছিন্ন হওয়া মজলুম শহীদদের মুখপাত্র বলে মন্তব্য করেছেন।

শহীদ হুজাজির দাফন ও শোক অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক মানুষের উপস্থিতির কথা তুলে ধরে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেছেন, মহান আল্লাহ শহীদ হুজাজির সংগ্রামের উসিলায় ইরানি জাতিকে গৌরবান্বিত করেছেন এবং তাকে বিপ্লবী যুব প্রজন্মের আদর্শ ও ইসলামি বিপ্লবের চলমান মু’জিজা বা অলৌকিক খোদায়ী নিদর্শনে পরিণত করেছেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা সারা ইরানে শহীদ হুজাজির খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ার কারণ ব্যাখ্যা করে আরও বলেছেন, সব শহীদই মজলুম ও হুজাজি ছাড়াও অন্য অনেককেও দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে শহীদ করা হয়েছে, তারা সবাইই মহান আল্লাহর কাছে প্রিয়, কিন্তু  মহান আল্লাহ তাঁর হেকমত বা প্রজ্ঞার মাধ্যমে হুজাজি ও তার নানা বৈশিষ্ট্যকে এই শহীদদের প্রতিনিধি ও মুখপাত্র করেছেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আরও বলেছেন,  ইরান, আফগানিস্তান, ইরাক ও অন্য অনেক অঞ্চল থেকে যারা দুর্বৃত্তদের মোকাবেলায় যুদ্ধ করতে গিয়ে শহীদ হয়েছেন তাদের সবাইকেই দেখা যায় শহীদ হুজাজির মধ্যে এবং হুজাজি তাদের সবারই সারাংশ বা সংক্ষিপ্ত রূপ; আর মহান আল্লাহ তাকে সাহসী ও মজলুম শহীদের প্রতীকে পরিণত করেছেন। – পার্সটুডে।