মঙ্গলবার, ১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

বিপন্ন ফারসি চিতা রক্ষায় ইন্সুরেন্স

পোস্ট হয়েছে: মে ২৯, ২০১৭ 

news-image
বৃহত্তর চিতা গোত্রের একটি উপ-প্রজাতি ফারসি চিতা। ইংরেজিতে যাকে বলা হয় প্যানথেরা পার্ডুস স্যাক্সিকালার। ইরানের একমাত্র জীবিত প্যানথেরা উপ-প্রজাতির চিতা এটি। দেশটিতে ফারসি চিতার অতিশয় পরিবেশগত মূল্য রয়েছেরয়েছে ঐতিহাসিক গুরুত্ব। 
চার বছর ধরে চালানো একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছেফারসি চিতার ৭১ শতাংশকে অবৈধভাবে শিকার অথবা মেষপালকরা তাদের পশুসম্পত্তি রক্ষার জন্য বিষ দিয়ে হত্যা করেছে। এছাড়া শিকার করার মতো পশুর সংখ্যা হ্রাস ও প্রাকৃতিক বাসস্থানের সংকোচন চিতার সংখ্যা কমার অন্যতম কারণ।
বিপন্ন প্রজাতির এই চিতা রক্ষায় গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করছে ইরান। এলক্ষ্যে দেশটিতে রয়েছে বন্যপ্রাণী ইন্সুরেন্স সেবা। পশুসম্পত্তি রক্ষার নামে মেষপালকদের চিতা নির্মূল থেকে বিরত রাখতেই এই ইন্সুরেন্স চালু করা হয়েছে। সম্প্রতি এই ইন্সুরেন্সের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর আবারও তা পাঁচ বছরের জন্য নবায়ন করা হয়েছে।
ইরানের হান্টিং ও ফিশিং অফিসের পরিবেশ বিভাগের পরিচালক আলী তেয়মুরি মেহেরনিউজ এজেন্সিকে জানানমা ইন্সুরেন্স কোম্পানির চুক্তিকৃত মেয়াদ গত মার্চে শেষ হয়েছে। পরে এটা আরও পাঁচ বছরের জন্য নবায়ন করা হয়েছে। 
এদিকেআন্তর্জাতিক প্রকৃতি সংরক্ষণ ইউনিয়নের তথ্যমতেআফ্রিকা ও এশিয়া জুড়ে ৮০০ থেকে ১,০০০-এর মতো ফারসি চিতার (প্যানথেরা পার্ডুস স্যাক্সিকালার) বিচরণ রয়েছে। সংস্থাটি বলছেচোরাশিকারের কারণে বাসস্থান হারানো এবং শিকার ভাগাভাগি ও কমে যেতে থাকার কারণে হুমকির মুখে পড়েছে প্রাণীটি।
সূত্র: ফিনানসিয়াল ট্রিবিউন, মেহের নিউজ।