শুক্রবার, ২৫শে মে, ২০১৮ ইং, ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

English

বিগত চার দশকে দ্রুত গতির বৈজ্ঞানিক প্রবৃদ্ধি হয়েছে ইরানের

পোস্ট হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৮ 

news-image

ইসলামি বিল্পবের পর গত চার দশকে দ্রুত গতির বৈজ্ঞানিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান।  ইসলামিক ওয়ার্ল্ড সাইন্স সাইটেশন সেন্টারের (আইএসসি) ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ড. মোহাম্মাদ রেজা দেহঘানি এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ইসলামি বিপ্লবের পর ইরানের দ্রুত গতির যে বৈজ্ঞানিক অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে তার স্বীকৃতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত বৈজ্ঞানিক প্রতিষ্ঠানগুলো। আমরা জৈববিজ্ঞান, ক্ষুদ্র ইলেকট্রনিক প্রযুক্তি, ন্যানো প্রযুক্তি, ঔষধি উদ্ভিদ, নয়া শক্তিসহ কৌশলগত প্রযুক্তিসমূহে বিনিয়োগ করেছি।  যা বৈজ্ঞানিক ক্ষেত্রে আমাদের গৌরবোজ্জ্বল পথে ধাবিত করেছে এবং সুপরিচিত প্রযুক্তিসমৃদ্ধ দেশগুলোর মধ্যে দেশ স্থান করে নিয়েছে।

২৪ জানুয়ারি ন্যাচার ইনডেক্স ইনস্টিটিউট প্রকাশিত প্রতিবেদন মতে, ইরান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে লাফিয়ে অগ্রগতি করেছে।  এ ক্ষেত্রে দেশের বাৎসরিক প্রবৃদ্ধির হার ২২ শতাংশ।  প্রবৃদ্ধি হারে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রথম স্থান দখল করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বৈজ্ঞানিক প্রবৃদ্ধিতে ১৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে চীন ও ভারত দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে।  এর পরে ধারাবাহিকভাবে রয়েছে ব্রাজিল, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, স্পেন, ইতালি, রাশিয়া এবং কানাডা।

তিনি বলেন, ওয়েব্ অব সাইন্সে প্রকাশিত ওই পরিসংখ্যান মতে, ১৯৭৯ সালে বৈজ্ঞানিক উৎপাদনে ইরানের অবদান ছিল দশমিক ০৯ শতাংশ।  যা বৃদ্ধি পেয়ে ২০১৭ সালে ১ দশমিক ৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।  বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে ৪৩তম স্থান থেকে ১৬তম স্থানে উন্নীত হয়েছে।

এই পরিসংখ্যানে আরও দেখা যায়, বৈজ্ঞানিক নিবন্ধ প্রকাশে গড়ে ইরানের বাৎসরিক ৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে।  সূত্র: মেহর নিউজ এজেন্সি।