শুক্রবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

বায়ু দূষণে বছরে ৩০ লাখ মানুষের মৃত্যু

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ১৮, ২০১৫ 

news-image

বিশ্বে প্রতিবছর বায়ু দূষণে অন্তত ৩০ লাখ মানুষ মারা যায়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ওজন স্তর হ্রাস ও অন্যান্য ক্ষতিকর কণার পরিমাণ বায়ু মন্ডল থেকে কমাতে না পারলে এধরনের দূষণে মানুষের মৃত্যু বাড়তেই থাকবে। এমনকি ২০৫০ সালের মধ্যে বিশ্বে বায়ু দূষণের কারণে মৃতের সংখ্যা ৬০ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

ন্যাচার জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রবন্ধে বলা হয়, এশিয়ায় রান্না ও ঘর গরম রাখার জন্যে কয়লা পোড়ানোর কারণে বায়ুদূষণ অন্যতম একটি দিক। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে শিল্পদূষণের কারণে বায়ুদূষণ হয়ে থাকে।

জার্মানির ম্যাক্স প্লাঙ্ক ইনস্টিটিউট ফর কেমিস্ট্রি’র গবেষক দলের প্রধান জস লেলিভেল্ড বলেন, বায়ু দূষণে এত বিপুল সংখ্যক মানুষের মৃত্যু স্তম্ভিত করার মত ঘটনা। কোনো কোনো দেশে বায়ু দূষণেই সর্বাধিক মানুষ মারা যাচ্ছে এমনকি কোনো কোনো দেশে এ কারণই মানুষের মৃত্যু একটি জরুরি ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বায়ু দূষণের কারণে মৃতদের মধ্যে ৭৫ ভাগ মানুষই মারা যায় হৃদরোগে। বাতাসে ভাসমান ক্ষতিকর কণা মানুষের ফুঁসফুঁসে জমা হতে থাকে এবং একটি পর্যায়ে তা বড় ধরনের বিপত্তি ঘটায়। এরপর বায়ু দূষণে ফুঁসফুঁসের ক্যান্সার ও শ্বাসতন্ত্রের রোগে মানুষ মারা যায় উল্লেখযোগ্য হারে।

গবেষণা প্রবন্ধে বলা হচ্ছে, যদি বিভিন্ন দেশের পক্ষ থেকে বায়ু দূষণ রোধে কোনো ব্যবস্থা না নেয়া হয় তাহলে মানুষের মৃত্যু আগামী ৩৫ বছরের মধ্যে বছরে ৬৬ লাখে গিয়ে দাঁড়াবে। এজন্যে দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়ারও পরামর্শ দেন জস লেলিভেল্ড। গবেষণায় বিভিন্ন দেশের জনসংখ্যা, স্বাস্থ্য পরিসংখ্যান থেকে তথ্য ও উপাত্ত ব্যবহার করা হয়েছে। প্রেসটিভি