শনিবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

পবিত্র প্রতিরক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে ইরানে বিশাল সামরিক কুচকাওয়াজ

পোস্ট হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৬ 

news-image
ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানে পবিত্র প্রতিরক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে বিশাল সামরিক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর বিভিন্ন শাখার সেনারা অংশ নেন। ইরাকের সাবেক স্বৈরশাসক সাদ্দামের চাপিয়ে দেয়া আট বছরের অন্যায় যুদ্ধের বার্ষিকী উপলক্ষে প্রতিরক্ষা সপ্তাহ পালন করে ইরান।
4bk91ce2ba82beeg8p_800c450-1
তেহরানে ইসলামি বিপ্লবের নেতা ইমাম খোমেইনীর মাজারের কাছে প্রধান সামরিক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াইরানের আরো বেশ কয়েকটি প্রদেশে এ কুচকাওয়াজ হয়। তেহরান কুচকাওয়াজে ইরানের সামরিক বাহিনী প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে তাদের নানা রকম ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাসহ সর্বশেষ সামরিক অর্জনগুলো তুলে ধরে। এর পাশাপাশি রাশিয়া থেকে আনা এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এবং ইরানে তৈরি ইমাদ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন করা হয়।
4bk9e6328957d1eg7a_800c450
সেনাবাহিনী তার নতুন প্রজন্মের জুলফিকার যুদ্ধট্যাংকফজর ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের যান এবং ১২০ মিলিমিটারের কিয়ান সেল্ফ প্রপেল্ড গান’ প্রদর্শন করে।
4bk950217862bbeg8a_800c450
প্রতিরক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দর আব্বাস নগরীতে নৌবাহিনী বিশাল কুচকাওয়াজের আয়োজন করে। এতে ৫০০ নৌযানসাবমেরিনজঙ্গিবিমান ও হেলিকপ্টার অংশ নেয়। এখানে ইরানের পদাতিক বাহিনী নিজেদের তৈরি করা জুলফিকার ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন করে। এ ক্ষেপণাস্ত্র এইকসঙ্গে কয়েকটি ওয়ারহেড বহন করতে পারে। এটি হচ্ছে ইরানের সর্বশেষ তৈরি করা দীর্ঘপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র এবং এটি ভূমিতে ও বিমানঘাঁটির টারমাক এবং রানওয়েতে সুনিপূণভাবে হামলা চালাতে সক্ষম।
4bk99ab56501cceg8m_800c450
আজকের কুচকাওয়াজে ইরানের সামরিক বাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ্‌স মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ হোসেইন বাকেরি প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানির পক্ষ থেকে বক্তৃতা দেন। তিনি বলেনপূর্ব এবং পশ্চিমের সমর্থনপুষ্ট সাদ্দাম ইরানের ওপর অন্যায় যুদ্ধ চাপিয়ে দিলেও ইরানের জনগণ তা সাহসের সঙ্গে মোকাবেলা করেছেন। ফলে সাদ্দাম তার লক্ষ্য অর্জন করতে ব্যর্থ হন। যুদ্ধের মাধ্যমে ইরানের জনগণকে পদানত করা যায় নি। পরে নিষেধাজ্ঞার মতো নিষ্ঠুর ব্যবস্থা চাপিয়ে দিয়েও ইরানকে কোণঠাসা করা যায় নি বরং কীভাবে নিজের পায়ে দাঁড়ানো যায় ইরানের সেনারা তা শিখেছেন। তিনি জানানমধ্যপ্রাচ্যে শত্রুর প্রতিটি পদক্ষেপকে ইরানের সেনারা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। মুসলিম দেশগুলোর অবকাঠামো ধ্বংসের জন্য ইহুদিবাদী ইসরাইল ও আমেরিকা প্রক্সি যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।
4bk9e5498f3eb2eg8d_800c450
এদিকেবন্দর আব্বাসে নৌবাহিনীর কুচকাওয়াজে ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ আলী জাফারি পারস্য উপসাগর ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য আমেরিকাকে পরামর্শ দেন। তিনি বলেনমার্কিন জনগণের সম্পদ নষ্ট করে পারস্য উপসাগরে সেনা উপস্থিতির মাধ্যমে কোনো কিছু অর্জন করা যাবে না। তিনি বলেন, “এটি হচ্ছে আমাদের বাড়িআমাদের বাড়ির আশপাশে ঘুরঘুর করা আমাদের কাছে খুবই বিব্রতকর বিষয়।” সূত্র: পার্সটুডে