বুধবার, ২০শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

নিলামে হাতে বোনা ইরানি কার্পের্টের দাম ওঠল ৪৩ লাখ ডলার

পোস্ট হয়েছে: আগস্ট ৩০, ২০১৬ 

news-image
এই প্রথমবারের মত ইরানে হাতে বোনা কার্পেটের নিলাম অনুষ্ঠিত হল তেহরানে। গত শুক্রবার এ নিলামে ৮৭ লাখ মার্কিন ডলারের কার্পেট বিক্রি হয়। ইরানিয়ান প্যারাডাইস’ নামে একটি হাতে বোনা কার্পেটের সর্বোচ্চ মূল্য ওঠে ৪৩ লাখ মার্কিন ডলার। সারাবিশ্বে ইরানের হাতে বোনা কার্পেট বিখ্যাত। ইরানিয়ান প্যারাডাইস নামের ওই কার্পেটটি উত্তর তেহরানের খানেহ হামায়েশএ নিলামে সবার নজর কাড়ে।
 
ইরানিয়ান প্যারাডাইস কার্পেটটি দেশটির হাতে বোনা কার্পেটগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড়। এটি দৈর্ঘ্যে ১০ মিটার ও প্রস্থে ১০ মিটার। ১০ জন শিল্পী ১৪ বছর ধরে হাতে বুনে এ কার্পেটটি তৈরি করেছেন। এটির ওজন ১৮০ কিলোগ্রাম।
 
হাতে বোনা কার্পেটের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ইরানে বেশ পুরোনো। দারাব ব্যাটেল’ নামে তেহরানে তৈরি একটি হাতে বোনা কার্পেট ১১০ বছর আগে ১৮ লাখ ডলারে বিক্রি হয়েছিল। আর তাব্রিজের ‘সুলতান মাসুদ’ কার্পেটটি বিক্রি হয়েছিল ৫ লক্ষ ৭০ হাজার ডলারে। দারাব হল মহাকবি ফেরদৌসির ‘শাহনামা’র একটি চরিত্র যার যুদ্ধের চিত্র ফুটিয়ে তোলা হয়েছিল ‘দারাব ব্যাটেল’ কার্পেটটিতে। শুধু দারাব যুদ্ধের ময়দান নয়শিকারের নানা ঘটনা হাতে বোনা কার্পেটে ফুটিয়ে তোলা হয়। এছাড়া ঐতিহ্যবাহী নানা কারুকাজ তো রয়েছেই। এধরনের একটি কার্পেট বাহরাম ঘুর হান্টিং’ নামে পরিচিত| যেটি দেড়শ বছর আগে তৈরি। তখনকার দিনেই ৩ লাখ ৭০ হাজার ডলার মূল্য উঠেছিল কার্পেটটির।
 
গত শুক্রবার তেহরানে ইরানের প্রখ্যাত অভিনেতা ও টিভি উপস্থাপক আহমাদ নাজাফি ৩৩টি হাতে বোনা কার্পেট নিলামে তুলে ধরেন। যার মধ্যে ২১টি কার্পেট বিক্রি হয়। অনুষ্ঠানে ব্রিটেনতুরস্কআলজেরিয়ার রাষ্ট্রদূত ছাড়াও গণমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। সবচেয়ে কমমূল্যে কোমে তৈরি একটি কার্পেট ১৭শ’ ডলারে বিক্রি হয়। কোম ছাড়াও ইস্ফাহানকেরমানকাশানমাশহাদে হাতে বোনা কার্পেট তৈরি হয়। বিশ্বের ৮০ ভাগ হাতে বোনা কার্পেট ইরানে তৈরি হয়। সুত্র: ফিন্যান্সিয়াল ট্রিবিউন