মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

নওরুজে ইরানে অভ্যন্তরীণ ভ্রমণ বাড়বে ২০ ভাগ

পোস্ট হয়েছে: মার্চ ১৮, ২০১৯ 

news-image

ফারসি নববর্ষ তথা নওরুজকে সামনে রেখে এবার ইরানে অভ্যন্তরীণ ভ্রমণের হার ২০ শতাংশ বাড়বে বলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। আগের বছরের তুলনায় এই ভ্রমণ হার বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন ইরানের পর্যটন প্রধান। খবর বার্তা সংস্থা মেহের নিউজ এজেন্সির।

ইরানের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, হস্তশিল্প ও পর্যটন সংস্থার (সিএইচএইচটিও) পরিচালক আলি আসকার মঙ্গলবার এই তথ্য জানান। তিনি এবছর বিদেশগামী পর্যটকদের সংখ্যা ব্যাপক হারে কমেছে উল্লেখ করে জানান, চলতি বছর বিদেশগামী পর্যটকের সংখ্যা ৩০ লাখ কমেছে। তবে অভ্যন্তরীণ ভ্রমণের হিসাব করলে দেখা যাবে, নওরুজের সময় দেশীয়ভাবে ভ্রমণের হার বাড়বে ২০ ভাগ।

সিএইচএইচটিও’র আগের পরিসংখ্যান মতে, গত বছরের প্রথম নয় মাসে সর্বমোট ৫৯ লাখ ৩৮১ জন ইরানি বিদেশ ভ্রমণ করেছেন। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এ বছর পর্যটক ৩০ শতাংশ কমবে বলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

নববর্ষে ইরানিরা বেশ দীর্ঘ ছুটি পেয়ে থাকেন। এসময় অধিকাংশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্র বন্ধ থাকে। সেই সাথে স্কুল-কলেজও বন্ধ রাখা হয়। ফলে লাখ লাখ ইরানি অভ্যন্তরীণভাবে ভ্রমণ করে থাকেন।

গত বছর ইরানে সরকারিভাবে নববর্ষের সপ্তাহ খানেক আগ থেকে তথা ১৫ মার্চ ছুটি শুরু হয়। ছুটি শেষ হয় ২ এপ্রিল ২০১৮। সিএইচএইচটিও এর তথ্য মতে, এই সময় ১ কোটি ৭০ লাখ মানুষ দেশটির সড়ক, ট্রেন, বিমান ও জাহাজ ভ্রমণ করেছেন।

১১ মাসে ইরান ভ্রমণে ৭০ লাখ পর্যটক

সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, হস্তশিল্প ও পর্যটন সংস্থার এই প্রধান কর্মকর্তা আরও জানান, চলতি ফারসি বছরের প্রথম ১১ মাসে সত্তর লাখের অধিক বিদেশি পর্যটক ইরান ভ্রমণ করেছে। যা বিগত বছরের একই সময়ের তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে চিকিৎসা সেবার জন্য প্রতিবেশী ইরাক, আযারবাইজান, আমেরিকা, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলো থেকে বহু পর্যটক ইরান সফরে আসেন। সরকারি হিসাব মতে, গত ফারসি বছর ১৩৯৬ সালে ৪ লাখ মেডিকেল পর্যটক গ্রহণ করেছে ইরান। সূত্র: তেহরান টাইমস