বুধবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

English

দেশীয় উৎপাদনে ইরানের ৪শ মিলিয়ন ডলার সাশ্রয়

পোস্ট হয়েছে: ডিসেম্বর ১৭, ২০১৯ 

news-image

চলতি ইরানি বছরের বিগত ছয় মাসে দেশীয় উৎপাদনের উপর নির্ভরশীলতায় ইরানের ৪শ মিলিয়ন ডলার সাশ্রয় হয়েছে। এই সাশ্রয় সম্ভব হয়েছে ছয়টি খাতের দেশীয় উৎপাদন দিয়ে। খাতগুলি হলো- মোটরগাড়ি, পেট্রোকেমিক্যালস, খনি, বিদ্যুৎ, ইলেকট্রনিক্স এবং টেলিযোগাযোগ শিল্প। শনিবার ইরানের শিল্প, খনি ও বাণিজ্য মন্ত্রী রেজা রহমানি মন্ত্রণালয়ের ডিপুটি কাউন্সিলের সভায় এই তথ্য জানান।

তিনি আরও জানান, বিদ্যুৎ, ইলেকট্রনিক্স এবং টেলিযোগাযোগ, পেট্রোকেমিক্যালস, গৃহ সরঞ্জাম, ইউটিলিটি, রেল এবং অটো শিল্পসহ আরও সাতটি খাতে দেশীয় উৎপাদন বাড়াতে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এতে দেশটির সাশ্রয় হবে আরও ৪৯০ মিলিয়ন ইউরো।

স্বনির্ভরতা বাড়াতে বিগত দুই বছর ইরান বড় ধরনের কিছু কৌশল গ্রহণ করে। তার মধ্যে দেশীয় উৎপাদনের বিকাশ ও জোরদার করা অন্যতম। চলতি বছর শীর্ষ এই এজেন্ডা অনুযায়ী ইরানি সরকার দেশীয় উৎপাদকদের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।

গত নভেম্বরের শেষে রহমানি বলেন, দেশীয় উৎপাদনের ওপর নির্ভর করা গেলে আগামী দুই বছরে তার দেশের দশ বিলিয়ন ডলার সাশ্রয় হবে।

মন্ত্রী আরও জানান, উল্লিখিত ১০ বিলিয়ন ডলারের মধ্যে টেলিযোগাযোগ সরঞ্জামের দেশীয় উৎপাদনের মাধ্যমে সাশ্রয় হবে ৫শ মিলিয়ন ডলারের মতো। আর গাড়ির যন্ত্রপাতির দেশীয় উৎপাদনের মাধ্যমে সাশ্রয় হবে আরও ৪শ মিলিয়ন ডলার। এই দুই খাতের দেশীয় উৎপাদনের মাধ্যমে ইতোমধ্যে ৩শ মিলিয়ন ডলার সাশ্রয় সম্ভব হয়েছে বলে জানান তিনি। সূত্র: তেহরান টাইমস।