শনিবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

তেহরান বুক গার্ডেন খুলে দেয়া হবে ৩ জুলাই

পোস্ট হয়েছে: জুন ২৯, ২০১৭ 

news-image

কয়েক দফা স্থগিতের পর আগামী তিন জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেয়া হচ্ছে ইরানের রাজধানী তেহরানের বুক গার্ডেন। বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ এ বুক গার্ডেনের মহাপরিচালক মাজিদ হোসেইনি এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তেহরান বুক গার্ডেনের সকল বিভাগ খুলে দেয়া হবে।

উত্তর তেহরানের আব্বাসাবাদ পাহাড়ে অবস্থিত এ বুক গার্ডেনের ৬৫ হাজার বর্গমিটার এলাকা জুড়ে রয়েছে প্রদর্শনীর জন্য বিশাল জায়গা, যেখানে বই মেলার আয়োজন করা যাবে। সেখানে রয়েছে বিপুল পরিমাণ স্থায়ী বইয়ের দোকান যা বছরব্যাপী খোলা থাকবে। পাশাপাশি বই পড়াতে উদ্দীপনা সৃষ্টিতে সহায়তায় প্রশস্ত স্থান ও সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।

সারাবছর ধরেই এ বুক গার্ডেন প্রদর্শনী ছাড়াও বই বিকিকিনির এক মোক্ষম স্থান হয়ে থাকবে। শিশু থেকে শুরু করে তরুণ কিংবা সববয়সের মানুষের পছন্দের যে কোনো বিষয়ের বই পাওয়া যাবে বুক গার্ডেনে। বই পড়ার জন্যে রয়েছে নিরিবিলি বিশেষ ব্যবস্থা। শিশু ও প্রতিবন্ধীদের জন্যে রয়েছে সংরক্ষিত এলাকা। রয়েছে গবেষণাগার। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও শিক্ষকদের জন্যে রয়েছে বিশেষ সুযোগ।

এছাড়া বই মেরামতের জন্যে বুক থেরাপি ক্লিনিক, প্লানেটোরিয়াম, মাল্টিমিডিয়া প্রডাক্ট ও স্টেশনারি, ই-বুক, ৬টি সম্মেলন কক্ষ, যাদুঘর, ফ্লাগ টাওয়ারসহ বিভিন্ন সুব্যবস্থা থাকবে তেহরান বুক গার্ডেনে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রকাশক ও বুক স্টোরগুলিকে যোগ দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। একইসাথে তাদের বুক গার্ডেনে অবদান রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে।

বুক গার্ডেনের উম্মুক্ত প্রাঙ্গণের চারদিকে ৪৫ হাজার বর্গমিটার জুড়ে রয়েছে বিভিন্ন ভবন। এতে রয়েছে একটি কৃত্রিম হ্রদ, একটি রেস্টুরেন্ট, একটি কফি শপ এবং বাচ্চাদের খেলার মাঠ। এছাড়া ৫ হাজার গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে এখানে।

সূত্র: ফিন্যান্সিয়াল ট্রিবিউন