সোমবার, ১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ঢাবিতে চতুর্থ আল বিরুনী আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

পোস্ট হয়েছে: এপ্রিল ১৯, ২০১৮ 

news-image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন দিনব্যাপী চতুর্থ আল বিরুনী আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের অডিটরিয়ামে এর উদ্বোধন করা হয়। আল বিরুনীর ৯৬৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আবু রায়হান আল বিরুনী ফাউন্ডেশন এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে।

সম্মেলনের মূল বিষয়বস্তু ছিল বৈজ্ঞানিক, দার্শনিক, সাংস্কৃতিক ও সমাজবিজ্ঞানীর প্রতীক হিসেবে বিরুনী; ইতিহাস সংস্কৃতি, ভাষা, সাহিত্য ও স্থাপত্যে ইন্দো-ইরানি সম্পর্ক।

সম্মেলনে ইরান-বাংলাদেশ সংস্কৃতির অগ্রযাত্রায় বিখ্যাত দার্শনিক আল বিরুনীর ভূমিকা অতুলনীয় বলে মূল্যায়ন করেছেন বিশিষ্টজনরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন হামর্দদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আবদুল মান্নান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আল বিরুনী বিশেষজ্ঞ ড. মজিদ গাজর। উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক একে আজাদ খান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আল বিরুনী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. আবু মুসা মোহাম্মদ আরিফ বিল্লাহ।

ইরানের বিজ্ঞান, গবেষণা ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপ-মন্ত্রী আলী আসগর রোস্তামী আবু সাঈদীর পক্ষে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, সম্মেলন উপলক্ষে পঠিত প্রবন্ধগুলো ইরান এবং বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছাত্র এবং শিক্ষকদের অধিকতর গবেষণা করার সুযোগ সৃষ্টি করবে।

উপাচার্য আবদুল মান্নান বলেন, বাংলাদেশ এবং ইরানের মধ্যে বহুকাল থেকে সাংস্কৃতিক সম্পর্ক রয়েছে। ফারসী ভাষা ও সাহিত্য উন্নয়নে মোগল আমল থেকে ঢাকা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে। ত্রয়োদশ শতাব্দী থেকে ইরানের যেসব দার্শনিক বাংলায় বিজ্ঞান, দর্শন, ধর্মতত্ত্ব, ইতিহাস এবং সংস্কৃতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন আল বিরুনী তাদের অন্যতম।