বৃহস্পতিবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

গ্যাস সম্পদে সুপারপাওয়ার ইরান: বিনিয়োগ দরকার ১০০ বিলিয়ন ডলার

পোস্ট হয়েছে: জুন ১৭, ২০১৫ 

news-image

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি গ্যাস সম্পদের অধিকারী ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান বলেছে, এ শিল্পের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য অন্তত ১০০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ দরকার। সম্প্রতি লণ্ডনভিত্তিক তেল কোম্পানি ব্রিটিশ পেট্রোলিয়াম নতুন প্রতিবেদনে বলেছে, ইরান এখন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি গ্যাস সম্পদের অধিকারী। এর আগে রাশিয়াতে ছিল বিশ্বের সবচেয়ে গ্যাসের রিজার্ভ।

বিপি তার সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বলেছে, ইরানে রয়েছে ৩৪ ট্রিলিন ঘনমিটার গ্যাস। অন্যদিকে রাশিয়ায় আছে ৩২.৬ ট্রিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাসের মজুদ। ফলে, ইরান এখন বিশ্বের সবচেয় বেশি গ্যাস সম্পদের অধিকারী দেশ।

rth-1ইরানের জাতীয় গ্যাস কোম্পানির আন্তর্জাতিক বিষয়ক পরিচালক আজিজুল্লাহ রামেজানি বলেছেন, আগামী ২০/৩০ বছরের মধ্যে প্রাকৃতিক গ্যাস হবে বিশ্বের প্রধান জ্বালানি। তিনি প্যারিস থেকে ব্লুমবার্গ টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, “কয়লার জায়গা দখল করবে প্রাকৃতিক গ্যাস এবং তেলের পর গ্যাস হবে দ্বিতীয় প্রাধান জ্বালানি।” সে কারণে ইরান তার গ্যাস সম্পদের উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে। ইরান সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বার্ষিক ১৬৬ বিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাস উত্তোলন করছে এবং এর বেশিরভাগই ব্যবহৃত হচ্ছে ইরানের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাতে। মাত্র ১০ বিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাস রপ্তানি করে ইরান।

এ প্রসঙ্গে রামেজানি বলেন, আগামী চার বছরের মধ্যে বাড়িয়ে প্রতিদিন ২০০ বিলিয়ন গ্যাস রপ্তানির পরিকল্পনা নিয়েছে ইরান। এখন প্রতিদিন ৮০ কোটি মিলিয়ন ঘনমিটার গ্যাস উত্তোলন করা হয়, সেখানে আগামী পাঁচ বছরে তা বাড়িয়ে ১২০ কোটি ঘনমিটারে নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

রেডিও তেহরান, ১২ জুন, ২০১৫