শনিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৯ ইং, ২রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

গভীর সমুদ্রে ইরানের সামরিক উপস্থিতি অব্যাহত থাকবে: অ্যাডমিরাল মুসাভি

পোস্ট হয়েছে: নভেম্বর ২০, ২০১৮ 

news-image

ইরানের সেনাবাহিনীর ডেপুটি কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল মাহমুদ মুসাভি বলেছেন, তার দেশের জাতীয় স্বার্থ রক্ষার লক্ষ্যে গভীর সমুদ্রে নিজের উপস্থিতি বজায় রাখবে ইরানের নৌবাহিনী।

তিনি আজ বার্তা সংস্থা ইরনাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ইরানের স্বার্থ রক্ষার জন্য সেনাবাহিনীর নৌবহরগুলোর উপস্থিতি জরুরি হওয়ায় গভীর সমুদ্রে এসব বহরের উপস্থিতি অব্যাহত থাকবে।

অ্যাডমিরাল মুসাভি বলেন, ইরানের একটি শক্তিশালী নৌবাহিনী রয়েছে বলে তাকে গভীর সমুদ্রে নিজের উপস্থিতি বজায় রাখতে হবে; তা না হলে অন্যরা ইরানের অনুপস্থিতির সুযোগ নেবে। তিনি আরো জানান, প্রয়োজনে আটলান্টিক মহাসাগরে আবারও নৌবহর পাঠাবে ইরান।

২০১৬ সালের নভেম্বরে ইরানের একটি নৌবহর আটলান্টিক মহাসাগরে টহল দিয়েছিল। গভীর সমুদ্রে চলাচলকারী বাণিজ্যিক জাহাজ ও ট্যাংকারের নিরাপত্তা রক্ষার লক্ষ্যে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সাগরে টহল জোরদার করেছে ইরানের নৌবাহিনী।

অ্যাডমিরাল মুসাভি এ সম্পর্কে আরো বলেন, ১৯৭৯ সালে ইসলামি বিপ্লবের পর থেকে ‘নির্মম নিষেধাজ্ঞা’ সত্ত্বেও ইরান সামরিক দিকে দিয়ে চোখ ধাধানো সাফল্য অর্জন করেছে। নিষেধাজ্ঞা দিয়ে ইরানের সামরিক অগ্রগতি রোধ করা যায়নি বলেও তিনি উল্লেখ করেন। পার্সটুডে।