সোমবার, ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

কেরালা চলচ্চিত্র উৎসবে ইরানের ১৮ ছবি

পোস্ট হয়েছে: জুলাই ১৯, ২০১৮ 

news-image

ভারতের কেরালায় শুরু হতে যাওয়া ইন্টারন্যাশনাল ডকুমেন্টারি অ্যান্ড শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভালে দেখানো হবে ইরানের ১৮টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। ফিদান ফিল্ম কমপ্লেক্সের উদ্যোগে বসছে এই কেরালা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ১১তম আসর। এবারের উৎসবে ইরানি শর্ট ফিল্ম প্রদর্শনের জন্য আলাদা বিভাগ থাকছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। কেবল ইরানি সিনেমার জন্য উৎসর্গকৃত এই বিভাগের নাম দেওয়া হয়েছে ‘পারসিয়ান টেইলস’। যেখানে দেখানোর জন্য ধারাবাহিক ভাবে সাজানো হয়েছে ইরানের ১৮টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি।

ইরানি শর্ট ফিল্মের জন্য নতুন চালু হওয়া পৃথক বিভাগ ‘পারসিয়ান টেইলস’ তৈরির পরিকল্পনা ও এ বিভাগে প্রদর্শনের জন্য ছবি বাছাইয়ের দায়িত্ব পান আমির মাসৌদ সোহেইলি ও হাদি আলিপানাহ। আন্তর্জাতিক এই শর্ট ফিল্ম উৎসবে প্রদর্শনের জন্য তারা ইরানের ১৮টি স্বল্পদের্ঘ্য ছবি বাছাই করেছেন। ইরানি এই সিনেমা বিভাগের উদ্দেশ্য আন্তর্জাতিক সিনেমা অঙ্গনে দেশটির চলচ্চিত্র নির্মাতাদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া। কেননা, লক্ষণীয় বৈশিষ্ট্যের জন্য বিভিন্ন ধরনের আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ইরানি স্বল্পদৈর্ঘ্য সিনেমাগুলো পছন্দ করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অর্জন করে চলেছে নানা সফলতা।

ভারতে ২০ জুলাই ১১তম ইন্টারন্যাশনাল ডকুমেন্টারি অ্যান্ড শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভালের পর্দা উঠবে। পাঁচ দিনব্যাপী উৎসবের পর্দা নামবে ২৪ জুলাই।

উৎসবে ‘পারসিয়ান টেইলস’ বিভাগে যেসব ছবি দেখানোর জন্য মননোনীত করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে- নির্মাতা আলিরেজা কাসেমির ‘লাঞ্চ টাইম’, হামেদ নেজাবাতের ‘লস্ট প্রোপারটি’, পারাসতু কারদগারের ‘ইকি’, কারিম লাকজাদেহর ‘এ গার্ল ইন দ্যা রুম’, বাহরাম ও বাহরাম আর্কের যৌথ পরিচালনার ছবি ‘এনিম্যাল’, আরিয়ান ভাজিরদাফতরির ‘ইন ইয়েট’ ও শিভা সাদেক আসাদির ‘ম্যানড অ্যান্ড ম্যাচো’।

এই বিভাগে আরও দেখানো হবে ইরানি চলচ্চিত্র পরিচালক সালেম সালাভাতির ‘পেইল মিরোরস’, মোনা শাহির ‘দ্যা লিটল বয়’, আতা মোজাবির ‘দ্যা ম্যান হু ওয়াজ্ন্ট হেয়ার’ ও ভাহিদ হোসেইন ইনামির ‘হোল টু পার্ট’। সূত্র: মেহর নিউজ এজেন্সি।