শনিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৯ ইং, ২রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

কুদস দিবসে বিপুল জনসমাগমের আহ্বান রুহানির

পোস্ট হয়েছে: জুন ৭, ২০১৮ 

news-image

ফিলিস্তিন ভূখণ্ড ইহুদিবাদি ইসরাইলের দখলে যাবার প্রায় ৭১ বছর পূর্ণ হতে যাচ্ছে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও রমজান মাসের শেষ শুক্রবার (৮ জুন)  সারা বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা বাইতুল মুকাদ্দাসে ইহুদিদের এই অবৈধ দখলের বিরুদ্ধে ঘৃণা প্রকাশ ও প্রতিবাদ করার মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করবেন। ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রতিষ্ঠাতা আয়াতুল্লাহ খোমেনি সর্বপ্রথম এ দিবসটি পালনের আহ্বান জানান এবং সে থেকেই বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালিত হয়ে আসছে।

এবারের বিশ্ব কুদস দিবসের সমাবেশে বিপুল সংখ্যাক জনসমাগমের আহ্বান জানিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তিনি বলেছেন, ‘বাইতুল মোকাদ্দাসে মুসলমানরা শিগগিরই ইবাদত করতে সক্ষম হবে।

বৃহস্পতিবার এক বার্তায় আন্তর্জাতিক কুদস দিবসের মিছিল সমাবেশে দেশের জনগণকে ব্যাপক ভাবে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান রুহানি। বলেন, ‘‘কুদস দিবস একটি ঐতিহাসিক দিন, যেদিন প্রত্যেকেই অত্যাচারীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায় এবং বিগত ৭০ বছর যাবত বাস্তুচ্যুত থাকা নিপীড়িত ফিলিস্তিনি জনগোষ্ঠীর পক্ষে আওয়াজ তোলেন।’’

এছাড়া আগামীকাল শুক্রবার কুদস দিবসের সমাবেশে অংশ নিতে দেশের সব জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশটির ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে দেশটির সেনাবাহিনী এই আমন্ত্রণ জানিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ফিলিস্তিন ও পবিত্র বায়তুল মোকাদ্দাসের দখলদার ইহুদিদের হাত থেকে মুসলমানদের প্রথম কেবলা আল আকসা মসজিদকে মুক্ত করার জন্য মুসলমানদের জাগিয়ে তোলাই এ দিবসের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য। এ ছাড়াও মজলুম ফিলিস্তিনি জাতির ওপর জগদ্দল পাথরের মতো চেপে বসা ইহুদি শাসন, শোষণ, নিপীড়ন ও তাদের নৃশংস হত্যাযজ্ঞের অবসান ঘটানো এবং বায়তুল মোকাদ্দাসকে রাজধানী করে ফিলিস্তিনি জাতির নিজস্ব রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাসহ মুসলমানদের বিরুদ্ধে সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলোর মোকাবেলার জন্য মুসলমানদের ঐক্যবদ্ধ করার জন্য কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে এ দিবস। সূত্র: মেহর নিউজ এজেন্সি।