মঙ্গলবার, ৯ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

English

ইসলাম ও হিজাব যে নারী উন্নয়নের সহায়ক তার প্রমাণ ইসলামী ইরান: সর্বোচ্চ নেতা

পোস্ট হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২১ 

news-image

ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, ইসলামী ইরান নারীর প্রতি সম্মান ও মর্যাদা প্রদর্শনে বিশ্বাসী। কিন্তু পাশ্চাত্য নারীকে পণ্য ও উপকরণ হিসেবে দেখে। নারীদের বিষয়ে ইসলাম ধর্ম ও পাশ্চাত্যের দৃষ্টিভঙ্গিতে এখানেই পার্থক্য।

তিনি আজ (বুধবার) আহলে বাইত (আ.)’র শোকগাথা পাঠকারীদের এক সমাবেশে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন। তিনি এ সময় নবী নন্দিনী হজরত ফাতিমা (সা.আ.)’র জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা জানান। ইরানে নবী নন্দিনীর জন্মবার্ষিকী নারী ও মা দিবস হিসেবে পালিত হয়।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আরও বলেন, ইসলাম ধর্মে ঐশী ও মানবীয় মূল্যবোধের দিক থেকে নারী ও পুরুষের মধ্যে কোনো তফাৎ নেই। অভিন্ন দায়িত্বের পাশাপাশি নারী ও পুরুষের বিশেষ দায়িত্বও রয়েছে। এ কারণে মহান আল্লাহ যার যার দায়িত্বের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে শারীরিক গঠন কাঠামো দিয়েছেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি আমাদের জন্য গর্বের বিষয়। আমরা নারী ও জীবন প্রণালীর বিষয়ে পাশ্চাত্যের দৃষ্টিভঙ্গির ঘোর বিরোধী।

তিনি বলেছেন, পাশ্চাত্য দাবি করছে ইসলাম ও হিজাব নারীর উন্নয়ন ও বিকাশে বাধা সৃষ্টি করে। কিন্তু এটা স্পষ্ট মিথ্যাচার। তারা যে ঠিক বলছে না তার প্রমাণ হলো ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানে নারীদের বর্তমান অবস্থা। সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিল্প, বিজ্ঞান, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অঙ্গনে কর্মতৎপর এবং শিক্ষিত নারীর সংখ্যা ইতিহাসের আর কোনো পর্যায়েই এত বেশি ছিল না। এসবই হয়েছে ইসলামী প্রজাতন্ত্রের কল্যাণে। পার্সটুডে