সোমবার, ১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইলশে গল্প

পোস্ট হয়েছে: আগস্ট ২৮, ২০১৯ 

সুমাইয়া বরকতউল্লাহ্ –

টুম্পাদের বাড়িতে আজ যেন উৎসব লেগেছে। আশপাশের সবাই আসছে তাদের বাড়ি। কারণ, একটাই। লন্ডন থেকে টুম্পার ভাইয়া ভাবি এসেছে। আবার তাদের সাথে ছোট্ট একটা মিষ্টি বাবুও এসেছে। পাশের বাড়ির চাচি, চাচাতো ভাই-বোন সবাই এসে বাবুটাকে দেখে যাচ্ছে! আর এদিকে আনন্দে ও গর্বে টুম্পার মুখের হাসিটা কান পর্যন্ত লম্বা হয়ে আছে। তার ছোট্ট ভাগ্নিটাকে তো সে হাতছাড়াই করে না। বাড়ি জুড়ে আনন্দই আনন্দ।
ভাগ্নিটার নাম এলিনা। এলিনাকে ঘিরে সবাই খেতে বসল। টুম্পার মা খুব সখ করে এলিনার পাতে এক টুকরো মাছ দিলেন। সাথে সাথে এলিনা বলে উঠল, ‘এটা কী মাছ? ’টুম্পা বলল, ‘ইলিশ। খাও, খুব মজা। আমাদের খুব প্রিয় মাছ এটি।’
‘এটা তোমাদের প্রিয় কেন?’
এলিনার এই প্রশ্নে হেসে ফেলল সবাই। টুম্পার বাবা এলিনার মাথায় হাত বুলিয়ে বললেন, ‘এটা খেলেই বুঝতে পারবে, কেন সবার প্রিয়।’
এলিনা খুব যত্ন করে মাছের কাঁটাগুলো বেছে মাছটা খেলো। তারপর সে হাতের আঙুল চুষতে চুষতে বলল, ‘আরো খাবো।’
তার পাতে আরেক টুকরো মাছ দেওয়া হলো। সে খেয়ে বলল, ‘আমি এত মজার মাছ আর খাই নি।’
টুম্পার বাবা গর্ব করে বললেন, ‘এবার বুঝেছ এটা কেন সবার এত প্রিয় ? এর স্বাদ, গন্ধই আলাদা। আর এটাই হলো আমাদের জাতীয় মাছ ইলিশ!’
এলিনা টুম্পার মার দিকে চোখ রাখল। সে বায়না ধরে ডানে-বামে শরীর ঝাঁকিয়ে বলল, ‘এবার ফিরে যাওয়ার সময় আমরা ইলিশ মাছ নিয়ে যাব কিন্তু!’
আনন্দে সবার মুখ চিকচিক করে উঠলো।