বুধবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

English

ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে ক্যালিগ্রাফি কর্মশালা

পোস্ট হয়েছে: ডিসেম্বর ৪, ২০১৯ 

news-image

ঢাকাস্থ ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্যোগে শিল্পী সাইফুল্লাহ সাফার পরিচালনায় দুই দিনব্যাপী ফ্রি ক্যালিগ্রাফি কর্মশালা ও ডেমনস্ট্রেশন মঙ্গলবার শেষ হয়েছে। সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ইরান দূতাবাসের সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কালচারাল কাউন্সেলর সাইয়্যেদ হাসান সেহাত।মঙ্গলবার বিকেলে কর্মশালার উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম আর্টস কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল ড. ছবিহুল আলম। তিনি বলেনক্যালিগ্রাফি শুধু দর্শনীয় বিষয় নয়এর অন্তর্নিহিত বিষয়ও রয়েছে। যেহেতু মানুষের ছবি আঁকার ব্যাপারে ইসলামে নিষেধ রয়েছে সেহেতু মুসলমানরা ক্যালিগ্রাফির দিকে আগ্রহী হয়। ক্যালিগ্রাফি বললে আমরা সাধারণত আরবি ক্যালিগ্রাফি বুঝি। কিন্তু বিভিন্ন ভাষায় ক্যালিগ্রাফি রয়েছে। ইদানিং বাংলা ভাষায়ও ক্যালিগ্রাফি চর্চা হচ্ছে। ক্যালিগ্রাফি শুধু লেখা নয়এর মধ্যে প্রকৃতি রয়েছেস্থাপত্য রয়েছেভাস্কর্য রয়েছে। এর মধ্যে অনেক প্রতীকী উপাদান রয়েছে। ক্যালিগ্রাফিতে কালার কম্বিনেশনটি খুব জরুরি। এদিকটি সকলকে মনে রাখা দরকার।

তিনি আরো বলেনবাংলাদেশে ক্যালিগ্রাফির অবস্থান কাঙিক্ষত অবস্থায় নেই। আমি আশা করব আপনাদের মাধ্যমে এটি একটি প্রতিষ্ঠিত শিল্পে পরিণত হবে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ফারসি ভাষা শিক্ষা কোর্সের ইরানি অতিথি শিক্ষক ড. আজীজী।

মঙ্গলবার সমাপনী অনুষ্ঠানে সাইয়্যেদ হাসান সেহাত বলেনআপনারা এই কর্শালায় যে লেখা শিখছেন তা হলো লেখাকে শৈল্পিকভাবে তুলে ধরা। পৃথিবীজুড়ে এ লেখার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের কাছে এটি তুলে ধরার জন্য আপনার এই দক্ষতাকে কাজে লাগাতে হবে।অনেকেই লিখতে পারেকিন্তু সুন্দর করে লেখাটি একটি শিল্প। মানুষ এই শৈল্পিক লেখাকে বিশেষভভাবে মূল্যায়ন করে।

তিনি বলেনযেহেতু ইরান ক্যালিগ্রাফি শিল্পে একটি বিশেষ স্থান দখল করে রয়েছে সেজন্য ইরানি ভাষা ফারসি জানলে আপনাদের ক্যালিগ্রাফির চর্চা আরো সমৃদ্ধ হবে। তিনি ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্র কর্তৃক পরিচালিত ফারসি ভাষা শিক্ষা কোর্সে সকলকে অংশগ্রহণ করার জন্য আহ্বান জানান এবং সেক্ষেত্রে বিশেষ ছাড় দেয়া হবে বলে ঘোষণা করেন। একইসাথে তিনি এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে ইরানের যেকোন বিষয়ের উপর ক্যালিগ্রাফি প্রতিযোগিতার ঘোষণা দেন এবং এতে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারকারীদের মাঝে মূল্যবান উপহার তুলে দেয়া হবে বলে জানান।সাইয়্যেদ হাসান সেহাত ক্যালিগ্রাফি কর্মশালার প্রশিক্ষক সাইফুল্লাহ সাফার প্রশংসা করে বলেনতিনি বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ক্যালিগ্রাফারদের অন্যতম। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তাঁর ক্যালিগ্রাফি শোভা পাচ্ছে।আমরা তার ও এই কর্মশালায় উপস্থিত সবার সাফল্য কামনা করছি।