সোমবার, ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরান-ভারত সম্পর্ক আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার রক্ষাকবচ হতে পারে: রুহানি

পোস্ট হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮ 

news-image

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, তার দেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক উন্নয়ন হলে তা শুধু দু দেশের জন্য লাভ বয়ে আনবে না বরং আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা সৃষ্টি করবে।

শুক্রবার রাতে রাজধানী নয়াদিল্লি পৌঁছানোর পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের সময় তিনি একথা বলেন। তিনি জানান, হায়দারাবাদ শহরে মুসলিম নেতা, আলেম সম্প্রদায় ও ভারত প্রবাসী ইরানি নাগরিকদের সঙ্গে তার ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট রুহানি জানান, তার এ সফরের মূলত দুটি অংশ রয়েছে; এর একটি হচ্ছে আর্থ-রাজনৈতিক অংশ এবং অন্যটি হচ্ছে সংস্কৃতি। তিনি শেষের অংশ দিয়ে সফর শুরু করেছেন এবং হায়দারাবাদে তা শেষ করেছেন। তিনি বলেন, হায়দারাবাদের ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলো প্রমাণ দেয়- ইরান ও ভারতের সভ্যতা কতটা অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত।

হাসান রুহানি সাংবাদিকদের জানান, দিল্লি অবস্থানের সময় তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কৃষি, নতুন প্রযুক্তি, ব্যাংকিং ও পরিবহন খাতে পারস্পরিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করবেন। এছাড়া, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা ইস্যু নিয়ে আলোচনা হবে। তিনি প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গেও বৈঠক করবেন বলে কথা রয়েছে।

প্রেসিডেন্ট রুহানি তিনদিনের সফরে বৃহস্পতিবার ভারতের হায়দারাবাদ শহরে পৌঁছান এবং ওইদিন সন্ধ্যায় তিনি সেখানে বক্তব্য দেন। এছাড়া তিনি শুক্রবার হায়দারাবাদ জামে মসজিদে জুমার নামাজের আগে মুসল্লিদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। প্রেসিডেন্ট রুহানির সঙ্গে রয়েছে ২১ সদস্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিনিধিদল। সফরে অন্তত ১৫টি বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক চুক্তি এবং সমঝোতা স্মারক সই হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট রুহানির সফরসঙ্গী হয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ, তেলমন্ত্রী বিজান জাঙ্গানেহ, সড়ক ও নগর উন্নয়নমন্ত্রী মোহাম্মাদ আখুন্দি এবং শিল্পমন্ত্রী মোহাম্মাদ শারিয়াত মাদারি। এছাড়া, বেসরকারি খাতের ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধিদল রয়েছে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে। -পার্সটুডে|