রবিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরানে উদ্দেশ্যমূলক বন পোড়ালে ৫ বছরের জেল

পোস্ট হয়েছে: জুন ১১, ২০১৭ 

news-image

ইরানে উদ্দেশ্যমূলকভাবে বা অসাবধানতাবশত বনে আগুন ধরিয়ে দিলে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি ভোগ করতে হবে অভিযুক্তদের। দেশটির পরিবেশ অধিদফতরের হান্টিং ও ফিশিং অফিসের পরিচালক আলী তেইমুরি জানিয়েছেন, যারা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে দাবানল ছড়িয়ে দেবে তাদের তিন থেকে পাঁচ বছর কারাভোগ করতে হবে। আর যারা অসাবধানতাবশত বন ও অন্যান্য সংরক্ষিত এলাকায় আগুন ধরিয়ে দেবে তাদের তিন মাস থেকে তিন বছর কারাভোগ করতে হবে।

আলী তেইমুরি বলেন, ‘এই সাজা দেয়া হবে ইসলামি দণ্ডবিধি মোতাবেক।’ তিনি বলেন, প্রতিবছর বিশেষ করে গ্রীষ্মকালে বন ও সংরক্ষিত অঞ্চলে দাবানলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। পরবর্তীতে পরিবেশ অধিদফতরকে এই আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে হয়।

তিনি জানান, ২০১৪-১৫ সালে পরিবেশ অধিদফতরের আওতাধীন প্রায় ৬ হাজার ৭০০ হেক্টর সংরক্ষিত বনাঞ্চল আগুনে জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। তবে ২০১৬-১৭ সালে এই চিত্র হ্রাস পেয়ে ২ হাজার ২০০ হেক্টরে দাঁড়িয়েছে।

ইরানের বন কর্মকর্তাদের তথ্যমতে, ইরানে ৯৫ ভাগ দাবানলের ঘটনা মনুষ্যসৃষ্ট, যার মধ্যে ৩০ ভাগই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। সূত্র: ফিন্যান্সিয়াল ট্রিবিউন।