মঙ্গলবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরানে অধ্যায়নরত ৫৫ হাজার বিদেশি শিক্ষার্থী

পোস্ট হয়েছে: মে ২৮, ২০১৮ 

news-image

ইরানের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫৫ হাজার বিদেশি শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে বলে জানিয়েছেন দেশটির উপ বিজ্ঞান মন্ত্রী হাসান সালার আমোলি। বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে এই তথ্য জানান তিনি। মন্ত্রী বলেন, ইরানে সর্বমোট ৫৫ হাজার বিদেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। এদের মধ্যে বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় অধিভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়ন করছে ২৬ হাজার শিক্ষার্থী, ইসলামিক আজাদ ইউনিভার্সিটিতে ১০ হাজার, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অধিভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ২ হাজার ও আলমুস্তাফা ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত রয়েছে ১৭ হাজার।

সালার আমোলি বলেন, বিজ্ঞান মন্ত্রণালয়ের অন্যতম বড় পলিসি হলো বিদেশি শিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট করা। তিনি জানান, সেন্টার ফর সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজি স্টাডিজ লেইদিন র‌্যাঙ্কিংয়ে ২০১৮ সালে বিশ্বের সেরা এক হাজার বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় ইরানের ২৩টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে। বেশি বেশি বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তিতে এগিয়ে থাকায় এসব বিশ্ববিদ্যালয় তালিকায় স্থান পেয়েছে বলে জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের আকৃষ্টের প্রতি নজর দেওয়া উচিত, যাদের পড়াশোনার খরচ পরিশোধ করতে হবে। এতে করে তাদের কাছ থেকে রাজস্ব আদায় হবে। আর এটা করতে হলে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভর্তি প্রক্রিয়া সহজ করা গুরুত্বপূর্ণ।

এরআগে ২০১৭ সালের লেইদিন তালিকায় বিশ্বের শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে স্থান পেয়েছিল ইরানের ১৮টি বিশ্বিবিদ্যালয়। এ বছর তালিকায় স্থান পেয়েছে ২৩টি বিশ্ববিদ্যালয়। অর্থাৎ আগের বছরের তুলনায় এবারের তালিকায় নতুন করে যোগ হয়েছে ইরানের আরও ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম।

২০১৭ সালে বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় স্থান পাওয়া ইরানি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- ইউনিভার্সিটি অব তেহরান, আমির কবির ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, তেহরান ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সাইন্স, শরিফ ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, তারবিয়াত মোদারেস ইউনিভার্সিটি, ইসফাহান ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, ইরান ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, শিরাজ ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, ফেরদৌসি ইউনিভার্সিটি অব মাশহাদ, ইউনিভার্সিটি অব তাবরিজ, শহিদ বেহেশতি ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সাইন্স, ইসলামিক আজাদ ইউনিভার্সিটি সাইন্স অ্যান্ড রিসার্চ ব্রাঞ্চ, শহিদ বেহেশতি ইউনিভার্সিটি-কে.এন, তুসি ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, ইউনিভার্সিটি অব ইসফাহান, ইসফাহান ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সাইন্স, ইউনিভার্সিটি অব গিলান ও শিরাজ ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সাইন্স।

এবছর তালিকায় নতুন করে যুক্ত হয়েছে- ইউনিভার্সিটি অব কাশান, তাবরিজ ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সাইন্স, মাশহাদ ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সাইন্স, বু-আলি সিনা ইউনিভার্সিটি ও শহিদ বাহোনার ইউনিভার্সিটি অব কেরমানের নাম।- তেহরান টাইমস।