বুধবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৮ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরানের মাদার তেরেসা আশরাফ কান্দেহারির চিরবিদায়

পোস্ট হয়েছে: মার্চ ৬, ২০১৭ 

news-image

ইরানের মাদার তেরেসা হিসেবে পরিচিত আশরাফ কান্দেহারি-বাহাদোরজাদেহ ৯১ বছর বয়সে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি মারা গেছেন। দেশটির রাজধানী তেহরানের দক্ষিণে খারিজাক নার্সিং হোম প্রতিষ্ঠা করেছিলেন তিনি। আশরাফ কান্দেহারি-বাহাদোরজাদেহ সারাজীবন গরিব মানুষের সাহায্যে নিজেকে সমর্পণ করেছিলেন। তিনি তার এধরনের ত্যাগ ও তীতিক্ষার জন্যে সন্মানিত ছিলেন। ১৯৭২ সালে খারিজাকে তিনি তার চিকিৎসা সাহায্য প্রতিষ্ঠান ও পুনর্বাসন কেন্দ্র গড়ে তোলার কাজ শুরু করেন।

এক সাক্ষাতকারে আশরাফ কান্দেহারি-বাহাদোরজাদেহ বলেছিলেন, তিনি যখন তার সাহায্য প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলার কাজ শুরু করেন, ছোট দুটি ঘরের মধ্যে যেখানে কাজ করা খুবই কঠিন ছিল। সেখানকার পরিবেশ মোটেও অনুকূল ছিল না। এমনকি সুপেয় পানির অভাব ছিল। আর আজ সেই খারিজাকে তার গড়ে তোলা হাসপাতাল ও পুনর্বাসনকেন্দ্রটি তেহরানের দক্ষিণে রীতিমত এক অসাধারণ প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। ৪ লাখ ২০ হাজার বর্গমিটার এলাকা জুড়ে হাসপাতালটিতে ৫’শ পুরুষ ও ১১’শ নারী ২২টি ভিন্ন ইউনিটে চিকিৎসার সুযোগ পাচ্ছেন।

এমনকি এই হাসপাতালে দুই তৃতীয়াংশ বয়স্ক মানুষ রোগি হিসেবে আছেন ও আরো এক তৃতীয়াংশ রয়েছেন শারীরিকভাবে অক্ষম যারা তাদের বাড়ি ফিরে যাননি কারণ তারা মনে করেন এই হাসপাতালটি তাদের নির্ভরযোগ্য আশ্রয়স্থল।

২০১৪ সালে কান্দেহারি ইরানের ডেপুটি স্পিকার মোহাম্মাদ হাসান আবোতোরাবি ফারদের কাছ থেকে সন্মানজনক পুরস্কার গ্রহণ করেন।

পিছিয়ে পড়া নারীদের জন্য আজীবন কাজ করে গেছেন, কিভাবে দাতব্যপ্রতিষ্ঠানগুলো পরিচালনা করতে হয় তার ওপর বই লিখেছেন এবং আন্তর্জাতিকভাবে অনেক কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

সূত্র: তেহরান টাইমস।