মঙ্গলবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরানের নতুন গ্যাসক্ষেত্রে ৪০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের বিশাল মজুদ

পোস্ট হয়েছে: অক্টোবর ১৪, ২০১৯ 

news-image

ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় ফার্স প্রদেশে সদ্য আবিষ্কৃত গ্যাসক্ষেত্রে আহরণযোগ্য বিপুল গ্যাসের মজুদ রয়েছে বলে জানা গেছে। ক্ষেত্রটিতে গ্যাসের মজুদ রয়েছে ১৩ হাজার কিউবিক ফুট, কনডেন্সেটের মজুদ রয়েছে ৩৮৫ মিলিয়ন ব্যারেল। যার মূল্য ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

নতুন আবিষ্কৃত গ্যাসক্ষেত্রটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘এরাম’। এই তথ্য জানিয়েছেন ইরানের জাতীয় তেল কোম্পানির উন্নয়ন ও প্রকৌশল বিষয়ক উপপরিচালক রেজা দেহকান। রোববার ইরানি বার্তা সংস্থা আইআরএনএ এই খবর দিয়েছে।

তিনি জানান, খনিটি থেকে উত্তোলিত গ্যাস পরিশোধনের জন্য ফার্স প্রদেশের নিকটস্থ পারসিয়ান গ্যাস রিফাইনারিতে সরবরাহ করা হবে।

১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের পর ইরানে অসংখ্য তেল ও গ্যাস খনি আবিষ্কৃত হয়েছে উল্লেখ করে দেহকান জানান, বিগত চল্লিশ বছরে তার দেশের মজুদ গ্যাসের ৭৫ শতাংশ এবং তেলের ২০ শতাংশ আবিষ্কার করা সম্ভব হয়েছে। ইরান ১৫৯ বিলিয়ন ব্যারেল অপরিশোধিত তেল ও ৩৪ বিলিয়ন কিউবিক মিটার গ্যাসের মজুদ নিয়ে বিশ্বে সর্বোচ্চ গ্যাস মজুদের দিক দিয়ে বর্তমানে দ্বিতীয় এবং তেল মজুদের দিক দিয়ে চতুর্থতম অবস্থানে রয়েছে।

ইরানি এই কর্মকর্তা আরও জানান, ইরান বর্তমানে তেল ও গ্যাস আহরণে স্বয়ংসম্পূর্ণ। তার দেশের এই খাত সংশ্লিষ্ট সকল প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে দেশীয় কোম্পানিগুলো। সূত্র: তেহরান টাইমস।