বুধবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৮ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরানের ‘কামানচেহ’ এখন বিশ্ব ঐতিহ্য

পোস্ট হয়েছে: ডিসেম্বর ১০, ২০১৭ 

news-image

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বাঁকানো স্ট্রিং বাদ্যযন্ত্র ‘কামানচেহ’ ও ঐতিহ্যবাহী ‘পোলো’ খেলা এখন বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ। জাতিসংঘের শিক্ষা ও সংস্কৃতিবিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কোর ইনট্যানজিবল সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পেয়েছে ঐতিহ্য দুটি। গত বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) ইউনেস্কোর দ্বাদশ আন্তর্জাতিক সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে ৪ ডিসেম্বর সম্মেলন শুরু হয়ে চলে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এ অধিবেশনে ইউনেস্কোর অধরা বা ইনট্যানজিবল সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় ‘কামানচেহ’কে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ঐতিহ্যদ্বয়কে ২০০৩ সালের কনভেনশনের আওতায় ইউনেস্কোর নথিভুক্ত করা হয়।

এ পর্যন্ত ইউনেস্কোর অধরা বা ইনট্যানজিবল সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় ইরানের ১৩টি ঐতিহ্য স্থান পেয়েছে। এর মধ্যে নৌরুজ ও কামানচেহর মতো কিছু বহুজাতিক ঐতিহ্যও রয়েছে।

কামানচেহ বা বাঁকানো স্ট্রিং বাদ্যযন্ত্র কী?

ফারসি ভাষার ‘কামানচেহ’ অর্থ হালকা বাঁকানো।  ইরান ছাড়াও এই বাদ্যযন্ত্রটি আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, তুরস্ক ও কুর্দে ব্যবহৃত হয়।  এই স্ট্রিং যন্ত্রটি একটি পরিবর্তনশীল-টান ধনু দিয়ে বাজানো হয়। যন্ত্রটি ইরানের পল্লি ও নগর অঞ্চলের বেশিরভাগ সম্মাননা প্রদর্শন অনুষ্ঠানে ব্যবহার করা হয়। ইরানের সুপরিচিত কামানচেহ বাদক হলেন আলি আসঘার, আর্দেশির কামকার ও কেয়হান কালহোর। সূত্র: মেহের নিউজ।