মঙ্গলবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

ইরানি দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী অভিনেতা অভিনেত্রীদের অনবদ্য অভিনয়

পোস্ট হয়েছে: মে ১৯, ২০১৬ 

news-image
ইরানে একদল দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী অভিনেতা ও অভিনেত্রীর অভিনীত একটি নাটক বেশ সাড়া ফেলেছে। এমনিতে অভিনয় করা খুব সহজ বিষয় নয়। তদুপরি দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হওয়ায় তাদেরকে স্ক্রিপ্ট মুখস্ত করতে হয়েছে অডিও শুনে শুনে। এরপর মঞ্চের কোথায় কী আছে তার প্রতিটি ফুট মনে রেখে অভিনয়ের সময় নড়াচড়া করতে হয়েছে। তাদের অভিনীত নাটক নিয়ে প্রেসটিভির রিপোর্টার ইউসেফ জালালি একটি প্রতিবেদন করেন।
ইউসেফ জালালি তার প্রতিবেদনে বলেন, এটি অন্য কোনো নাটকের মত সাধারণ কোনো অভিনয় নয় এ নাটকে যারা অভিনয় করছেন তারা সকলেই দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী। দি লাইট নামে ওই নাটকের কাহিনী গড়ে উঠেছে একটি মেয়ের জীবন কাহিনী নিয়ে। যেখানে নাটকের নায়ক যুদ্ধে গিয়েছে। নাটকের পরিচালক গোলাম রেজা আরাবি দুই বছর আগে একদল দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী তরুণ-তরুণীকে নিয়ে এ নাট্যদল গড়ে তোলেন। এজন্যে তাকেও কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে।
নাটকের একজন অভিনেত্রী নেদা সোলায়মানি বলেন, দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হওয়ার কারণে আমাদের অভিনয়ের সময় প্রতিটি পদক্ষেপ খুবই সাবধানে নিতে হয়। অডিও শুনে আমরা স্ক্রিপ্ট মুখস্ত করি। আর মঞ্চের কোন স্থানে কী আছে তার একটা চিত্র আমাদের মনে মনে রেখে অভিনয়ের সময় চলাচল করতে হয়। এভাবে অভিনয় করা খুবই কঠিন। এছাড়া আমাদের অভিনয় করার সময় সারাক্ষণ মনে রাখতে হয় দর্শকরা যেন আমাদের দৃষ্টিহীন মনে না করে নাটক উপভোগ করতে পারে। এজন্যে স্বাভাবিক মানুষের মতই আমাদের চলাফেরা, সংলাপ বলা ও অভিনয়ে একটা সাবলীল গতি রাখতে হয়। আরেকজন অভিনেত্রী মারিয়ম জানান, দৃষ্টিশক্তি নেই বলে আমি আমার জীবনে খুবই হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। এমনকি বেঁচে থেকে কী লাভ এমন দুশ্চিন্তাও আমার মনে বাসা বাঁধে। কিন্তু এই নাট্যদলে যোগ দেয়ার পর আমি আমার জীবনকে নতুন করে খুঁজে পেয়েছি।
নাট্যদলের পরিচালক গোলাম রেজা আরাবি বলেন, মঞ্চে প্রতিটি বিষয়কে মনে রেখে ও নির্দেশনা অনুযায়ী কীভাবে চমৎকার অভিনয় করতে হবে তাদেরকে সেসব বিষয় খেয়াল রাখতে হয়। এজন্যে তারা কঠোর পরিশ্রমও করে।
নাটক করা একটি চ্যালেঞ্জিং বিষয়। আর দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের জন্য সেই চ্যালেঞ্জকে মোকাবেলা করে অভিনয় করাটা কত কঠিন ভাবুন একবার।