সোমবার, ১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

‘আমেরিকা অবাক দৃষ্টিতে দেখছে আরকিউ-১৭০’র ইরানি ভার্সন’

পোস্ট হয়েছে: নভেম্বর ১৮, ২০১৪ 

news-image

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রভাবশালী আলেম আয়াতুল্লাহ আলী মোভাহেদি কেরমানি বলেছেন, মার্কিন আরকিউ-১৭০ ড্রোনের ইরানি ভার্সন আমেরিকার সম্মান ও মর্যাদার জন্য একটা বড় আঘাত। আজ রাজধানী তেহরানে জুমার নামাজের খুতবায় তিনি এ কথা বলেন।

জুমার নামাজের খতিব বলেন, অত্যাধুনিক আরকিউ-১৭০ ড্রোনকে রিভার্স ইঞ্জিনিয়ারিং করার ক্ষমতা ইরানিদের নেই বলে আমেরিকা দাবি করে আসছিল। কিন্তু ইরান রিভার্স ইঞ্জিনিয়ারিং করতে সক্ষম হয়েছে। এ কারণে তারা এখন অবাক দৃষ্টিতে আরকিউ-১৭০’র ইরানি ভার্সন দেখছে।

আগামী বছরই ড্রোনটি ব্যাপক সংখ্যায় তৈরি করা হবে জানান তিনি। আয়াতুল্লাহ কেরমানি বলেন, মার্কিন আরকিউ-১৭০ ড্রোনের রাডার ফাঁকি দেয়ার প্রযুক্তিতে কিছু ত্রুটি ছিল, ইরানি ভার্সন সেই ত্রুটি থেকেও মুক্ত।

কয়েক দিন আগে মার্কিন ড্রোনটির ইরানি ভার্সন প্রথমবারের মতো সফলভাবে আকাশে উড়েছে। ড্রোনটি উড়ার ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে ইরানের সেনাবাহিনী। ওই ফুটেজ বিশ্বের বিভিন্ন টিভি চ্যানেল সম্প্রচার করেছে।

২০১১ সালের ৪ ডিসেম্বর সেনাবাহিনীর ইলেক্ট্রনিক যুদ্ধ ইউনিট ইরানের আকাশে ঢোকার পর রাডার ফাঁকি দিতে সক্ষম মার্কিন আরকিউ-১৭০ ড্রোন সফলভাবে নামিয়ে আনে। মার্কিন লকহিড মার্টিন কোম্পানির তৈরি এ ড্রোনটি আফগান সীমান্ত দিয়ে ইরানের আকাশসীমায় ঢুকেছিল। মার্কিন আরকিউ-১৭০ ড্রোনটি আটকের পর এর কারিগরী বিষয়ক তথ্য উদ্ঘাটন করতে সক্ষম হন ইরানি বিশেষজ্ঞরা।

তেহরানের জুমার নামাজের খতিব আয়াতুল্লাহ কেরমানি ইসরাইলি হুমকি প্রসঙ্গে বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের সেনাবাহিনী এবং পরমাণু কেন্দ্রগুলো আমাদের ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় রয়েছে। মুহূর্তের মধ্যে ইসরাইলের সব কিছু ধ্বংস করে দেয়ার ক্ষমতা রয়েছে এসব ক্ষেপণাস্ত্রের।

রেডিও তেহরান, ১৪ নভেম্বর, ২০১৪