মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ১লা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

‘আকাশসীমা লঙ্ঘনের ১ সেকেন্ডের মধ্যেই ধ্বংস হলো শত্রু ড্রোন’

পোস্ট হয়েছে: জানুয়ারি ১, ২০১৭ 

news-image

ইরানের সেনাবাহিনী এবং বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির বিশাল সামরিক মহড়া বুধবার চূড়ান্ত পর্যায়ে প্রবেশ করেছে। ‘মোদাফেয়ানে আসমানে বেলায়েত-৭’ বা ‘বেলায়েত আকাশ প্রহরী-৭’ নামের এ মহড়ায় কল্পিত শত্রুর হানাদার ড্রোনবহরকে মহড়ার নির্ধারিত আকাশসীমা লঙ্ঘনের এক সেকেন্ডের মধ্যেই দীর্ঘপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ধ্বংস করা হয়েছে।

মহড়ার সকালের পর্বে খারাক দ্বীপে বসানো ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি তালাশ ক্ষেপণান্ত্র ব্যবস্থা হানাদার ড্রোনবহরকে ধ্বংস করে দেয়। ইরানের নিজস্ব ব্যবস্থায় তৈরি ওফোক বা দিগন্ত নামের এয়ারবোর্ন ফায়ার কন্ট্রোল রাডারের সঙ্গে একযোগে কাজ করেছে এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা।

এ দ্বীপের অন্যান্য স্থানে মেরসাদ বা ওঁৎ পাতাসহ আরো কয়েক ধরণের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা বসানো ছিল। এসবের সহায়তায় কল্পিত শত্রুর অন্যান্য ড্রোন ধ্বংস করা হয়েছে।

এদিকে, মহড়া এলাকা এড়িয়ে চলার জন্য ইরানি এবং বিদেশি বিমানগুলোকে আগেই সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। এ সত্ত্বেও বাইরের দেশের বিমানকে মহড়া এলাকা এড়িয়ে চলার জন্য কয়েকবার সতর্ক করতে হয়েছে। তিনদিনের মহড়ায় এ নিয়ে ১২ দফা এ ধরনের ঘটনা ঘটল বলে মহড়ার মুখপাত্র আব্বাস ফারাজপুর জানান।

ইরানের তিন প্রদেশ- খুজিস্তান, হুরমুজগান এবং বুশেহরের প্রায় পাঁচ লাখ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে এ মহড়া চলেছে। মহড়ায় প্রায় ১৭ হাজার সেনা সদস্য অংশ নিয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে