সোমবার, ১৭ই জুন, ২০১৯ ইং, ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

অর্থনৈতিক সম্পর্ক সুদৃঢ় করতে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মধ্য এশিয়া সফর শুরু

পোস্ট হয়েছে: এপ্রিল ২০, ২০১৭ 

news-image

অর্থনৈতিক ও দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার করার লক্ষ্যে মধ্য এশিয়া এবং ককেশাস অঞ্চলের তিনটি দেশ সফর শুরু করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ।

২০ সদস্যের একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বাণিজ্যিক প্রতিনিধি দল নিয়ে তুর্কমেনিস্তান, জর্জিয়া ও কিরঘিজিস্তানে তিন দিনের সফর শুরু করেছেন জাওয়াদ জারিফ।  ট্রানজিট বিষয়ে নয়া সম্পর্ক গড়াই এ সফরের অন্যতম লক্ষ্য বলে জানিয়েছে ইরানের এ শীর্ষ কূটনীতিক।

জারিফ বলেন, কৃষ্ণ সাগরকে পারস্য উপসাগর এবং ভারত মহাসাগরের সঙ্গে সংযুক্ত করার লক্ষ্যে জর্জিয়ার সঙ্গে ট্রানজিট সহযোগিতার সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে উত্তর-দক্ষিণ করিডর নেটওয়ার্কের পথ সম্প্রসারিত হবে বলে জানান তিনি। রোববার তুর্কমেনিস্তানের রাজধানী আশকাবাদে পৌঁছে জারিফ এ মন্তব্য করেন।  বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান দেশটির প্রথম উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভেপা হাজিয়েভ।

তুর্কমেনিস্তানের প্রেসিডেন্ট গুরবাংগুলি বেরডিমুখামেদভের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফ তার মধ্য এশিয়া সফর শুরু করেন। বৈঠকে আঞ্চলিক বিভিন্ন পরিস্থিতির পাশাপাশি তেহরান ও আশকাবাদের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক কিভাবে আরো  বাড়ানো যায় সে বিষয়ে জারিফ আলোচনা করবেন বলে কথা রয়েছে।

২০০০ সালে ভারত, ইরান এবং রাশিয়ার মধ্যে  ইন্টারন্যাশনাল  নর্থ-সাউথ ট্রান্সপোর্ট বা এনএসটিসি  করিডর নিয়ে একটি সমঝোতা হয়েছিল।ভারত উপমহাদেশ এবং মধ্যপ্রাচ্যকে ককেশাস, মধ্য এশিয়া এবং  ইউরোপের সাথে সংযুক্ত করার লক্ষ্যে করিডর নেটওয়ার্ক গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। ইরান, রাশিয়া ও ভারতের পাশাপাশি ট্রানজিট নেটওয়ার্কে যুক্ত হবে আরমেনিয়া, আজারবাইজান, বেলারুশ, কিরঘিজিস্তান, তাজিকিস্তান, কাজাখস্তান, ইউক্রেন, তুরস্ক, তাজিকিস্তান, ওমান, সিরিয়া ও বুলগেরিয়া। সূত্র: পার্সটুডে।