বুধবার, ১৭ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ২রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

English

অর্থনীতিই হচ্ছে প্রধান অগ্রাধিকার: সর্বোচ্চ নেতা

পোস্ট হয়েছে: আগস্ট ২৭, ২০১৭ 

news-image

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, দেশের অর্থনৈতিক ইস্যুগুলোকে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দিতে হবে। দেশের তরুণ সমাজের বেকারত্বসহ সাধারণ মানুষ যেসব সমস্যা মোকাবেলা করছে তা দূর করার জন্য দেশের কর্মকর্তাদের নিরলস প্রচেষ্টা চালানোর তাগিদ দেন।

ইরানের সরকার সপ্তাহ উপলক্ষে রাজধানী তেহরানে শনিবার এক অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ নেতা এসব কথা বলেছেন। অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানিসহ তার মন্ত্রিসভার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, দেশের অর্থনীতি সর্বস্তরের কর্মকর্তাদের কাছে অগ্রাধিকার পেতে হবে। এ সময় তিনি ব্যাংকিং, বিনিয়োগ, তারল্যবৃদ্ধি এবং চোরাচালান প্রতিরোধের গুরুত্ব নিয়েও কথা বলেন।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, প্রেসিডেন্ট রুহানিসহ কর্মকর্তারা জনগণের জন্য কাজ করছেন এবং তাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তবে, জটিল মন্তব্যের মুখে সরকারি কর্মকর্তাদেরকে অনেক বেশি ধৈর্য ধরার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে ও সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে সাহসিকতা দেখাতে হবে এবং সেগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে।

সর্বোচ্চ নেতা জোর দিয়ে বলেন, কূটনৈতিক ইস্যুগুলোতে ইসলামি বিপ্লবই হবে সম্মানের উৎস, আমাদেরকে অবশ্যই জাতীয় প্রথাগুলো মেনে চলার ক্ষেত্রে মর্যাদাবান মনে করতে হবে, ইসলামি বিপ্লব হতে উৎসরিত প্রথাগুলো যেমন বলদর্পী শক্তিগুলোকে প্রতিরোধ, জোর-জবরদস্তির বিরুদ্ধে লড়াই এবং সাম্রাজ্যবাদী শক্তির বিরোধিতার ক্ষেত্রে আমাদেরকে অবশ্যই মর্যাদা অনুভব করতে হবে। তিনি আরো বলেন, ইরানের কূটনীতির দরজা বিশ্বের সব দেশের জন্য খোলা রাখতে হবে এবং অবশ্যই গুটিকতক দেশের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্ব দেয়া যাবে না।

দ্রুততা ও বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে বহির্বিশ্বে কূটনৈতিক তৎপরতা চালানোর জন্য তিনি দেশের কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। এর পাশাপাশি শত্রুদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান ধরে রাখারও কথা বলেন।

সর্বোচ্চ নেতার বক্তৃতার আগে প্রেসিডেন্ট রুহানি তার আগের সরকারের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন তুলে ধরেন। এছাড়া, দ্বিতীয় মেয়াদের নতুন সরকারের কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কেও সর্বোচ্চ নেতাকে অবহিত করেন। তিনি বলেন, বেকারত্ব ও অর্থনীতিই হচ্ছে দেশের প্রধান সমস্যা। দেশে প্রতিবছর নয় লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবেন বলেও ড. রুহানি প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। – পার্সটুডে।